,



দলে ঐক্য হলে ভালো, না হলে দরকার নেই

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রিপাবলিকানদের মধ্যে কোনো ঐক্য হলে সেটাকে দলের জন্য ভালো বলে অভিহিত করেছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে না হলেও তিনি পরোয়া করেন না। তার মনোনয়নকে কেন্দ্র করেই দলের দ্বিধাবিভক্ত সিনিয়র নেতাদের উদ্দেশে তিনি এ কথা বলেন। রোববার এবিসি টিভিতে প্রচারিত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তবে আমার মনে হয় রিপাবলিকানরা সবাই একতাবদ্ধ হবে। কিন্তু যদি তা নয় তাহলেও কোনো ক্ষতি নেই। আমি মনে করি না যে আসলে এটা খুব বেশি প্রয়োজন। ট্রাম্প আশা করছেন কিছু ডেমোক্রেট ভোটার তাদের সমর্থন তাকে দেবেন। তিনি বলেন, শুধু রিপাবলিকান ভোটার নয় ডেমোক্রেটদের কয়েক মিলিয়ন ভোটও পেতে যাচ্ছি আমি। বার্নি স্যান্ডার্সের সমর্থকদের ভোট পাব। কারণ তারা আমাকে পছন্দ করেন। ট্রাম্প আরও বলেন, তিনি এসব ঐক্যের পরোয়া করেন না। এটা তার কাছে কোনো বিষয়ই নয়। ‘ডোনাল্ড ট্রাম্প নন, তাকে বাদে যে কেউ’ অভিযানে যখন রিপাবলিকানদের মধ্যে বিভক্তি তীব্র হচ্ছে তখন তার বিরোধিতাকে নস্যি হিসেবে আমলে নিয়েছেন ট্রাম্প। তার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন ২০১২ সালে রিপাবলিকান দল থেকে প্রেসিডেন্ট পদে মনোনীত প্রার্থী মিট রমনি, দল থেকে নির্বাচিত সাবেক দুই প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশ, জর্জ ডব্লিউ বুশ, এবারে মনোনয়ন প্রত্যাশী জেব বুশ। এ ছাড়া আছেন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার পল রায়ান, সাউথ ক্যারোলাইনার সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম, নেব্রাস্কার সিনেটর বেন স্যাসে। মনোনয়ন দৌড় থেকে ছিটকে পড়া টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ, ওহাইওর গভর্নর জন কাসিচ ও ফ্লোরিডার সিনেটর মারকো রুবিও এখনও তাদের সিদ্ধান্ত জানাননি। অনেক রিপাবলিকান প্রকাশ্যে বলেছেন, তারা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ভোট দেবেন না। ফলে এর সুফল পাবেন ডেমোক্রেট দলের সম্ভাব্য প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন।
‘হিলারি নারী নিপীড়নের সহযোগী’
রাজনীতির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় নারী নিপীড়কের স্ত্রীর নাম হিলারি ক্লিনটন, মূলত এ বক্তব্যের মাধ্যমে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের দিকেই এবার আক্রমণের তীর ছুড়লেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। নারীদের কটূক্তি করে ট্রাম্পের করা আগের বক্তব্যগুলোকে বিজ্ঞাপন আকারে প্রচার করার জন্য বিল ক্লিনটনের উদ্যোগের জবাবে তিনি একথা বলেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর