,



ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অর্জন থেকে অনুপ্রাণিত হন মুমিনুল

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ বাংলাদেশের ক্রিকেট দিনদিন উন্নত হচ্ছে। টাইগারদের মোকাবেলা করতে এখন বিশ্বের বাঘা বাঘা ক্রিকেট দলগুলো এখন চিন্তায় পড়ে যায়। তবে উল্টো চিত্র সাদা জার্সির বাঘেদের ম্যাচে। টেস্ট স্ট্যাটাস প্রাপ্তির দুেই দশক অতিক্রান্ত হলেও লাল বলে মুমিনুল-মুশফিকদের পারফর‌ম্যান্স ফিঁকে। গতকাল (২৬ জুন) টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার ২০ বছর পূর্ণ হয় বাংলাদেশের দলের। সময়ের হিসেবে দুই দশক পেরিয়ে গেলেও ক্রিকেটের  অভিজাত এই সংস্করণে সদ্য হাঁটতে শেখা শিশুই রয়ে গেছে টাইগাররা। ১১৯ টেস্টে ১৪ জয়ের সাথে ১৬ ড্র, বিপরীতে হারতে হয়েছে ৮৯টি ম্যাচে। দলীয় ব্যর্থতার ভীড়ে অবশ্য আছে বেশ কিছু ব্যক্তিগত অর্জন। টাইগারদের বর্তমান টেস্ট কাপ্তান মুমিনুল হক স্বীকার করে নিয়েছেন দলীয় প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ বাংলাদেশ। তবে অনুপ্রেরণা খুঁজে নিতে চান ব্যক্তিগত অর্জন থেকে।

ক্রিকেট ওয়েবসাইট ‘ক্রিকবাজ’কে বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক বলেন, ‘সত্যি বলতে আমি মনে করি দল হিসেবে যেখানে যাওয়ার কথা ছিল সেখানে যেতে পারিনি আমরা (গত ২০ বছরে)। প্রত্যাশা পূরণ হয়নি, এটা স্বীকার করের নিতে হবে আমাদের। দল হিসেবে আরও উন্নতি করা উচিৎ ছিল।’

সাম্প্রতিক সময়ে অবশ্য দল হিসেবে কিছুটা উন্নতি লক্ষণীয়। ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মত দলের বিপক্ষে জয়। শ্রীলঙ্কার মাটিতে তাদেরকেই হারানো প্রাপ্তির খাতায় অনায়াসেই যোগ করা যায়। এর বাইরে ব্যক্তিগতভাবে ব্যাটসম্যানদের ডাবল সেঞ্চুরি, বোলারদের ম্যাচে ১০ উইকেটসহ অনুপ্রাণিত হওয়ার মত পারফরম্যান্স আছে বেশ কয়েকটি।

সেসব উদাহরণ টেনে মুমিনুল বলেন, ‘তবে ইতিবাচক দিকও আছে কিছু। আপনাকে এই ইতিবাচক জিনিসগুলো থেকে অনুপ্রেরণা খুঁজে নিতে হবে। ব্যক্তিগত দিক থেকে অনেক উন্নতি হয়েছে। ব্যক্তিগতভাবে অনেক ভালো ভালো পারফরম্যান্স আছে।’

‘আমাদের কয়েকটি ডাবল সেঞ্চুরি আছে। আমাদের বেশ কয়েকজন বোলার পাঁচ উইকেট নিয়েছে। আমাদের বোলারদের হ্যাটট্রিক আছে। আমি বলবো ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সগুলো থেকে অনুপ্রাণিত হওয়ার অনেকগুলো ইতিবাচক দিক আছে।’

ঘরের মাঠেও নিয়ুমিত টেস্ট হারা বাংলাদেশ এখন ঘরের মাঠে জয়ে অভ্যস্ত হচ্ছে। সাদা পোশাকে টাইগার দলপতি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন এই ব্যাপারটিকেও, ‘আরেকটা জিনিস উন্নতি হয়েছে সেটা হল আমরা ঘরের মাঠেও জয়ে অভ্যস্ত ছিলাম না। তবে এখন সবার মনে আত্মবিশ্বাস আছে অন্তত ঘরের মাঠে আমরা কার্যকর হতে পারি। আরও উন্নতি অবশ্য দরকার। প্রতিপক্ষ যেই হোক ঘরের মাঠের ম্যাচগুলো আমাদের জেতা উচিৎ।’

‘খুব বেশি নয় তবে আমি মনে করি কিছুটা হলেও উন্নতি হয়েছে। ঘরের মাঠে আমরা টেস্ট সিরিজ জিতলে উন্নতিটা পরিষ্কার হবে। কম হোক বেশি হোক আমরা নিয়মিত জিতে যাচ্ছি।’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর