,



স্বামীর ছুরিকাঘাতে নববধূর মৃত্যু

 বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ বিয়ের ৭ মাস পর স্বামীর ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে ৬ দিন চিকিৎসা নেয়ার পর মারা গেলেন নববধূ মরিয়ম আক্তার। এ ঘটনায় স্বামী সোহাগ মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

৪ আগষ্ট ছুরিকাঘাতের শিকার হয় নববধূ মরিয়ম আক্তার। ৬ দিন ধরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে তার মৃত্যু হয় তার।

নিহত মরিয়ম আক্তার লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের মালগাড়া গ্রামের মৃত মোস্তফার মেয়ে ও তার স্বামী একই উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বালাপাড়া গ্রামের মোঃ আব্দুল হামিদের ছেলে সোহাগ মিয়া। ৭ মাস আগে তাদের বিয়ে হয়।

স্থানীয়রা জানান, বিয়ের পর থেকে যৌতুক নিয়ে সোহাগ-মরিয়ম দম্পত্তি’র মধ্যে দ্বন্দ চলে আসছে। ঈদের ৩ দিন পর ৪ আগষ্ট বাড়িতে কোনো খাবার না দিয়ে সোহাগ ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্বামী সোহাগ তার স্ত্রী মরিয়মের কোমরে চাকু দিয়ে জখম করেন।

পরে স্থানীয় লোকজন মরিয়মকে উদ্ধার করে প্রথমে কালীগঞ্জের স্থানীয় হাসপাতালে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে তার মৃত্যু ঘটে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে । ওই নববধূর স্বামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর