,



যুব দলে নেই বিশ্বকাপজয়ী দুই কোচ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ চলতি বছরের শুরুতে বাংলাদেশকে বিশ্বসেরার স্বীকৃতি এনে দিয়েছিল আকবর আলীর দল। যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলটার সাফল্যের নেপথ্যের নায়ক ছিলেন কোচরা। লঙ্কান হেড কোচ নাভিদ নেওয়াজের সঙ্গে ট্রেনার রিচার্ড স্টনিয়ের, বোলিং কোচ মাহবুব জাকি, ফিল্ডিং কোচ ফয়সাল হোসেন ডিকেন্সসহ অন্যদের শ্রম সফলতার মুখ দেখেছিল।

আগামী ২০২২ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য দলগঠনের কাজ শুরু করেছে বিসিবির গেম ডেভলপমেন্ট বিভাগ। ৪৫ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে দলটার কোচিং প্যানেলও চূড়ান্ত হয়েছে। নাভিদ, স্টনিয়েররা থাকলেও দেশীয় কোচদের মধ্যে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

বিশ্বকাপজয়ী দলের অংশ মাহবুব জাকি, ডিকেন্স বাদ পড়েছেন। তাদের জায়গায় নতুন করে নিয়োগ পেয়েছেন সহকারী কোচ (ব্যাটিং) মেহরাব হোসেন অপি, বোলিং কোচ তালহা জুবায়ের ও ফিল্ডিং কোচ মোহাম্মদ সেলিম। গতকাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গেম ডেভলপমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন।

যুব দলের সঙ্গে প্রায় ৮ বছর ধরে কাজ করে আসছেন মাহবুব জাকি। অভিজ্ঞ এই কোচের হাত ধরেই তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমানরা বেড়ে উঠেছেন। তাসকিন বোলিং অ্যাকশন শুধরেছেন তার সঙ্গে কাজ করেই। করোনাকালেও তাসকিনের বোলিংয়ের পরামর্শক তিনি। এবার বিশ্বকাপ জয়ের স্বীকৃতিও যোগ হলো মাহবুব জাকির ভান্ডারে। যদিও সেই অভিজ্ঞতা আর যুব দলে কাজে লাগাচ্ছে না বিসিবি।

গেম ডেভলপমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন অবশ্য জানালেন, প্রতি বছরই এমন পরিবর্তন হয়। গতকাল জানতে চাইলে তিনি বলেছেন, ‘আমরা প্রতি বছরই পরিবর্তন করি। আমরা সবাইকে সুযোগ দিতে চাই। ডেভলপমেন্টে নতুন কোচ যারা আছে তাদেরকে সুযোগ দিতে চাই। ২০১৬ তে বাবুল ভাইরা (মিজানুর রহমান বাবুল) যাওয়ার পর জাকি ভাই (মাহবুব জাকি), মুর্তজারা (গোলাম মুর্তজা) ছিল। এভাবেই আমরা প্রতি বছর পরিবর্তন করে থাকি।’

তবে চোখে পড়ার মতো উন্নতি হয়েছে মেহরাব হোসেন অপির। দেশের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ানের ক্যারিয়ারটা বড় হয়নি তার অনিয়ন্ত্রিত জীবনের কারণে। কোচ হিসেবে নতুন ক্যারিয়ার গড়ছেন তিনি। সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৭ দলে হেড কোচ সোহেল ইসলামের সহকারী ছিলেন। এক লাফে হয়ে গেলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সহকারী কোচ।

খালেদ মাহমুদ সুজনের দাবি, কোচ হিসেবে অপির পারফরম্যান্স খুব ভালো। গতকাল তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, অনূর্ধ্ব-১৭ দলে ছিল। আমাদের রিপোর্ট যা বলে ও খুব ভালো কাজ করেছে। নাভিদের সঙ্গে ও কাজ করবে। নাভিদ ঐ ক্যাম্প চালাবে। শুরুতে হয়তো আসতে পারবে না। ওর কিছুটা জটিলতা আছে।’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর