,



২২ ঘণ্টা সাগরে যেভাবে ভেসেছিলেন নাবিকরা

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ বৈরী আবহাওয়া। সমুদ্র উত্তাল। এর মধ্যেই চট্টগ্রাম থেকে এক হাজার ৮০০ টন গম নিয়ে নারায়ণগঞ্জ যাচ্ছিল ‘এমভি আকতার বানু-১’। পতেঙ্গা থেকে প্রায় ৪০ নটিক্যাল মাইল দূরের হাতিয়ায় জাহাজটি ডুবে যায়। এতে নিখোঁজ হন ১৪ নাবিক। দীর্ঘসময় তারা সাগরে ভেসেছিলেন। অবশেষে ২২ ঘণ্টা পর নাবিকদের জীবিত উদ্ধার করা হয়।

হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, শনিবার সকালে দুর্ঘটনার পর থেকে লাইফ জ্যাকেট পরে জাহাজে ভেসেছিলেন নাবিকরা। রোববার সকালে একটি ফিশিং ট্রলারের সহযোগিতায় নিঝুম দ্বীপ এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া ১৪ জন নাবিক হাতিয়া উপজেলার সূর্যমুখী আছকা বাজার এলাকায় রয়েছেন।

এমভি আকতার বানু-১’র মাস্টার জিয়াউল করিম বলেন, শনিবার সকালে প্রচণ্ড বাতাসে জাহাজে পানি ঢুকে যায়। অনেক চেষ্টা করেও উপকূলে ভিড়তে পারিনি। একপর্যায়ে লাইফ জ্যাকেট পরে ১৪ জন একসঙ্গে সাগরে লাফ দেই। ২২ ঘণ্টা সাগরে ভাসার পর রোববার সকালে নিঝুম দ্বীপ এলাকায় ফিশিং ট্রলারের জেলেরা আমাদের উদ্ধার করেন।

জাহাজটির শিপিং এজেন্ট ‘লিটমন্ড শিপিং’-এর অপারেশন ম্যানেজার জাহিদ হোসেন বলেন, আকতার বানু-১’র মাস্টারসহ ১৪ জন জীবিত উদ্ধার হয়েছে। হাতিয়া থেকে তাদের চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হবে। এরইমধ্যে দুইটি ট্রলার পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এক হাজার ৮০০ টন গম নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙর থেকে নারায়ণগঞ্জ যাওয়ার পথে শনিবার সকালে হাতিয়া এলাকায় আকতার বানু জাহাজটি ডুবে যায়।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর