,



রংপুর জেলার পুলিশ অসহায় বৃদ্ধাকে বাড়ি উপহার দিল

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ রংপুরের সালমা বেগম। বয়স ১০০ বছর পেরিয়েছে। রংপুর মহানগরীর ৩৩ নং ওয়ার্ডের বসুনিয়া পাড়ায় থাকেন। স্বামীকে হারিয়েছেন অনেক আগেই। তিনি ৮ সন্তানের জননী। কিন্তু এই অসহায় বৃদ্ধাকে সন্তানরা দেখভাল না করায় করুণ পরিস্থিতিতে পড়েন তিনি। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর তার অবস্থা আরও করুণ হয়ে উঠে।

‘উই আর বাংলাদেশ’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই বৃদ্ধার করুণ অবস্থা তুলে ধরে ফেসবুকে পোস্ট দেয়। আর এই পোস্ট দেখে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রংপুর জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার।

বুধবার দুপুরে (১৯ আগস্ট) উই আর বাংলাদেশ এর আর্থিক সহযোগিতা ও জেলা পুলিশের তত্বাবধানে বৃদ্ধাকে একটি বাড়ি উপহার দেন। রংপুর জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এসএএফ) মো. আশরাফুল ইসলাম পলাশের সভাপতিত্বে পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বাড়ি হস্তান্তর করেন।

স্থানীয়রা জানান, বৃদ্ধার স্বামী মারা গেছেন প্রায় অনেক বছর আগে। ৮ সন্তানের মধ্যে ৭ জনই খোঁজখবর নেন না। তবে তাদের মধ্যে ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ ও অসুস্থ ছেলে ও তার স্ত্রী একটু দেখাশোনা করেন। বেশিরভাগ সময়ই খেয়ে না খেয়ে কাটে তার দিন। তারপরেও পেতেন না বয়স্ক ভাতা কিংবা বিধবা ভাতা।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম জানান, এর আগে তার ছেলে বয়স্ক ভাতার জন্য আমার কাছে আসলেও তার মা যে বেঁচে আছেন এটা আমি জানতামই না। এখন থেকে নিয়মিত তার খোঁজখবর রাখবো।

এ সময় পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো সওয়াবের কাজ। সমাজের অসহায় মানুষের পাশে আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) আবু তৈয়ব মোহাম্মদ আরিফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) মারুফ আহমেদ এবং সহকারী পুলিশ সুপার (এসএএফ) আশরাফুল আলম পলাশসহ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর