,



কালীপূজোয় সাকিব, যা বলছেন কলকাতার আয়োজকরা

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের কলকাতায় একটি কালীপূজার উদ্বোধনে থাকা নিয়ে যে সমালোচনা হচ্ছে, তাকে উগ্র মৌলবাদীদের কাজ বলে মনে করছেন ওই পূজা কমিটির প্রধান উদ্যোক্তা ও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পরেশ পাল।

গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘সাকিক পূজোর উদ্বোধন কখনই করেন নি। তিনি মুসলমান হয়েও হিন্দুদের পূজায় কেন হাজির ছিলেন, সেই প্রশ্ন তুলে তার সমালোচনা করা অন্যায্য। ওই পূজার উদ্বোধন আসলে করেছিলেন এক হিন্দু সন্ন্যাসী।’

এদিকে, পূজোর অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা মহসিন তালুদারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার সিলেটের সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা।

প্রসঙ্গত, রোববার দিবাগত রাত ১২টা ৬ মিনিটে ফেসবুক লাইভে এসে সাকিব আল হাসানকে গলা কেটে হত্যার ঘোষণা দেন মহসিন তালুকদার নামে সিলেটের ওই যুবক।

প্রথমে মাথায় টুপি পরে ফেসবুক লাইভে এসে সালাম প্রদর্শন করে ওই যুবক বলেন, ‘সাকিব আল হাসান কয়দিন আগে দেশে আইছইন। কিছুদিন আগে তাইন হজে গেছিলা, তখন খুশি হইছিলাম। কিন্তু তাইন ইবার দেশে আইয়া আবার গেলাগি ইন্ডিয়াত পূজা উদ্বোধন করাত। ইটায় মুসলমানের কলিজায় আঘাত করছে। আমি ফাইলে তারে (একটি চাপাতি প্রদর্শন করে) কোপাইয়া কোপাইয়া কাটিমু।’

এ সময় সাকিব আল হাসানকে গালিগালাজ করে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের অনুসরণ করার কথা পরামর্শ দিয়ে ওই যুবক বলেন, ‘তুই কিতা পাকিস্তানের ক্রিকেটাররারে দেখছস না? তোর তো তারারে দেখা উচিৎ। তুই মুসলমানের বাচ্চা হইয়া গেছোস পূজা উদ্বোধন করাত। কলিজাত তুই অলা আঘাত দিছস। তোরে ফাইলে আমি কোপাইয়া কাটিমু। সবাই হুনিয়া রাখইন আমি মহসিন তালুকদার কইরাম। সাকিবরে ফাইলে আমি কোপাইয়া কাটিমু।’

এসময় ওই যুবক সাকিব আল হাসান সেলফি তোলা নিয়ে ভক্তদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করার সমালোচনা করে তাকে গালিগালাজ করেন।

এদিকে রাতের ওই লাইভের পর সোমবার ভোরে ওই আইডি থেকে ফের লাইভে আসেন মহসিন তালুকদার নামের ওই যুবক। এ সময় তিনি আগের লাইভের কথাগুলোর জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘রাত্রে আমি একটি লাইভে এসে সাকিব আল হাসানকে গালিগালাজ করেছিলাম। কিন্তু ফজরের নামাজে যাওয়ার পর আমার মনে হলো বিষয়টি ঠিক হয়নি। তখন আমি তার হেদায়াতের জন্য দোয়া করি। আল্লাহর কাছে বলি আল্লাহ যেন তাকে হেদায়াত দান করেন। যদিও তখন খুব উত্তেজিত হয়ে আমি অনেকগুলো কথা বলেছি। কিন্তু বিষয়টি ঠিক হয়নি। এজন্য আমি দুঃখিত।’

গত ১২ নভেম্বর কলকাতায় গিয়ে কালীপূজার অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বিশ্বক্রিকেটের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এই অলরাউন্ডার। ওইদিন সন্ধ্যায় ফিতা কেটে ও প্রদীপ জ্বালিয়ে পূর্ব কলকাতার কাঁকুড়গাছিতে ‘আমরা সবাই ক্লাব’র ৫৯তম শ্যামাপূজার অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

যদিও সোমবার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করে সাকিব জানিয়েছেন তিনি কালি পূজা উদ্বোধন করতে যাননি।

সাকিব বলেন, ‘ঘটনাটি খুব সেনসেটিভ। আমি আসলে নিজেকে একজন গর্বিত মুসলমান মনে করি। আমার কোন ভুল হয়ে থাকলে আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি, আর আপনাদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকলেও আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মিডিয়াতে এসেছে আমি পূজা উদ্বোধন করতে গিয়েছি। আসলে আমি পূজার উদ্বোধন করতে যাইনি আর করিওনি। পূজার উদ্বোধন আমি যাবার আগেই করা হয়েছে। আপনারা পূজার ইনভাইটেশন কার্ড দেখলেই বুঝতে পারবেন কে পূজার উদ্বোধন করেছে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর