,



ইন্দোনেশিয়ার বিমানটির দুর্ঘটনাস্থল শনাক্ত

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ ইন্দোনেশিয়ার কর্তৃপক্ষ বলছে, ৬২ যাত্রীসহ জাকার্তা থেকে আকাশে উড্ডয়নের একটু পরেই বিধ্বস্ত হয়েছে বোয়িং ৭৩৭ বিমান। যে স্থানটিতে এটি বিধ্বস্ত হয়েছে, তা শনাক্ত করতে পেরেছে বলে দাবি করেছে দেশটির নৌবাহিনী।

ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনী বলছে, যেখানে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে, সেই জায়গায় তারা তল্লাশি দল পাঠিয়েছে। খবর বিবিসির।

১০টিরও বেশি নৌবাহিনীর জাহাজ দুর্ঘটনাস্থলটিতে তল্লাশি চালাচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত বিধ্বস্ত বিমানটির সন্ধান পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় এক জেলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনি একটি বিমান সাগরে ডুবে যেতে দেখেছেন। শ্রীভিজায়া এয়ারের বিমানটি রাজধানী জাকার্তার বিমানবন্দর ত্যাগের পরই বিমানের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে কর্মকর্তারা জানান।

স্যোশাল মিডিয়ায় কিছু ছবি ও ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যেগুলো দেখে নিখোঁজ ওই বিমানের ধ্বংসাবশেষ বলে মনে হচ্ছে।

রেজিস্ট্রেশন তথ্যানুযায়ী, দুর্ঘটাকবলিত বিমানটি ২৭ বছরের পুরনো একটি বোয়িং ৭৩৭-৫০০ মডেলের বিমান।

ফ্লাইট ট্র্যাকার ওয়েবসাইট ফ্লাইটরেডারটুয়েনটিফোরডটকম জানাচ্ছে, বিমানটির উচ্চতা এক মিনিটের মধ্যে তিন হাজার মিটার পড়ে গিয়েছিল।

এর আগে ২০১৮ সালের অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ায় স্থানীয় বিমান সংস্থা লায়ন এয়ারের একটি ফ্লাইট ১৮৯ যাত্রী নিয়ে সাগরে বিধ্বস্ত হয়।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর