,



১১১ কেজি ওজনের দুষ্প্রাপ্য মারলিন ফিশ, বিক্রি হলো পানির দামে

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া বাজারে দেখা মিললো ১১১ কেজি ওজনের প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দুষ্প্রাপ্য মারলিন ফিশ। ইউরোপের বাজারে এটি অগ্নিমূল‌্য হলেও পাকুন্দিয়ায় বিক্রি হয়েছে পানির দামে।

শনিবার (২০ মার্চ) বিকেলে থেকে মাছের ভাগা নিতে ক্রেতাদের ভিড় দেখা যায়।

স্বপন মিয়া নামে স্থানীয় এক জেলে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থেকে মাছটি সংগ্রহ করেছেন। তিনি জানান, এ মাছটি চট্টগ্রাম থেকে যাত্রাবাড়ি এক আড়তে আনা হয়েছিল। মাছটি ৫০ ভাগা করা হয়। প্রতি ভাগা ১ হাজার টাকা করে ৫০ জন ভোজন রসিক এটি কিনে নেন।

ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হলে সাফি সুমন নামে লন্ডন প্রবাসী এক বাংলাদেশি জানান, সেখানে মারলিন ফিশ প্রতি কেজি ৫০ হাজার টাকা করে বিক্রি হয়।

কিশোরগঞ্জ জেলা মৎস কর্মকর্তা রিপন কুমার পাল জানান, মাছটি বাজারে কিভাবে এলো তার খবর নেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশেএ মাছ বিরল প্রজাতির।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় শীতল অঞ্চলের দ্রুতগতির মাছ। এটি ঘণ্টায় ১২৯ কিলোমিটার বেগে ছুটতে পারে। পানি থেকে ৭০/৮০ ফুট ওপরে আকাশে লাফাতে পারে। বঙ্গোপসাগরে এ মাছ খুব একটা দেখা যায় না।

আমেরিকার বিভিন্ন অঞ্চলে মাছ শিকার সংক্রান্ত বিভিন্ন খেলায়ও অংশ নিয়ে থাকে মাছটি। মারলিন ফিশে ভিটামিন ও প্রচুর পরিমাণ ফসফরাস থাকায় এটি মহামূল্যবান মাছ হিসাবে অনেক বেশি মূল্যে বিক্রি হয়ে থাকে।

কিন্তু আসল পরিচয় না জানায় স্থানীয়ভাবে জেলেরা মারলিন ফিশকে পাখি মাছ হিসাবে চেনেন। ফলে তারা না জেনে খুব কম মূল্যে বিক্রি করেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর