,



রাতে তরমুজ খেলেই বিপদ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ গ্রীষ্মকালীন ফল তরমুজ। রসালো ও সুমিষ্ট এই ফলটি গরমে সহজেই শরীরে আরাম দেয়। শুধু তাই নয়, তরমুজ খাওয়ার রয়েছে অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতাও। নিয়মিত তরমুজ খাওয়ার ফলে হৃদপিণ্ড সুস্থ থাকে। এতে রয়েছে ভিটামিন ও মিনারেল। এছাড়াও পটাশিয়াম ও লাইকোপিনের মতো গুরুত্বপূর্ণ সব খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ তরমুজ।

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতে নিয়মিত তরমুজ খাওয়ার ফলে পেশির ব্যথা দূর হয়। সেই সঙ্গে হৃদরোগের সমস্যা থেকে শুরু করে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়তেও সহায়তা করে এই ফল। জানেন কি, রাতে তরমুজ খেলে হতে পারে মারাত্মক বিপদ! চলুন তবে জেনে নেয়া যাক রাতে তরমুজ খেলে কী কী ক্ষতি হতে পারে-

>> সাধারণত সন্ধ্যার পর শরীরের হজম প্রক্রিয়া কমে যায়। এ কারণেই রাতের খাবারে হালকা খাবার রাখার জন্য বলে থাকেনে বিশেষজ্ঞরা। এই সময় তরমুজ খাওয়ার থেকে না খাওয়াই ভালো। কেননা, তরমুজে অনেক পানি এবং প্রাকৃতিক অ্যাসিড থাকায় পেটে ব্যথা বা গ্যাস্ট্রিকজনিত সমস্যার সম্ভাবনা থাকে।

>> তরমুজে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক চিনি রয়েছে। এই চিনি শরীরের জন্য ভালো হলেও রাতে মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়া একদমই উচিত নয়। এতে করে ওজন বাড়তে পারে।

>> রসালো এই ফলে ৯২ শতাংশ পর্যন্ত পানি থাকে। ফলে রাতে তরমুজ খাওয়ায় একাধিকবার টয়লেটে যাওয়ার মতো সমস্যা হতে পারে। এমনকি পেট ফোলা ভাবও হয়ে থাকে। সেই সঙ্গে ঘুমে সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

উপকারিতা পেতে হলে অবশ্যই নিয়মানুযায়ী তরমুজ খেতে হবে। চলুন এবার জেনে নেয়া যাক তরমুজ খাওয়ার সঠিক সময় ও নিয়ম সম্পর্কে-

দিনের যেকোনো সময়ই তরমুজ খেতে পারেন। তবে কখনোই একসঙ্গে অনেক বেশি না খেয়ে অল্প অল্প করে একাধিকবার কয়েক টুকরো খেতে পারেন। তরমুজ সকালের নাস্তায় খাওয়া সব থেকে ভালো হতে পারে। এতে শরীরে শক্তি জোগাবে এবং শরীর-মন দুটো সতেজ থাকবে। মনে রাখা জরুরি, তরমুজ খাওয়ার ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের মধ্যে পানি পান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর