,



কৌশানীকে ‘ভদ্রমহিলা’ হবার পরামর্শ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ রাজ্য রাজনীতি ফের তোলপাড়। এবার তৃণমূল তারকা-প্রার্থী কৌশানী মুখার্জির মন্তব্য ঘিরে। বহুবছর আগে এই কৃষ্ণনগরের মাটিতে দাঁড়িয়ে তাপস পালের উক্তির সঙ্গে কৌশানীর মন্তব্যকে মিলিয়ে দিচ্ছেন নেটিজেনরা। শুক্রবার রাত থেকেই নেট দুনিয়ায় যে ভিডিও ভাইরাল হয়, তাতে কৌশানীকে হুমকির সুরেই বলতে শোনা গেছে, ‘ঘরে সবার মা-বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি!’ এই সুযোগে বিরোধী দলের প্রার্থীকে বিঁধতে ছাড়েননি বিজেপি নেত্রী ও সঞ্চালক-অভিনেত্রী রূপা ভট্টাচার্য। রূপার মতে, কৌশানীর মতো নেত্রীদের আচরণে লজ্জায় তাঁদের মাথা কাটা গেছে। এমনকি কৌশানীকে ভদ্রতাবোধও চোখে আঙুল দিয়ে শেখাতে চাইছেন রূপা। সোশ্যাল মিডিয়ায় কৌশানীকে উদ্দেশ্য করে লিখেছেন, ‘কৌশানী আপনি মূলত একজন অভিনেত্রী। তাই আপনার মধ্যে একজন পরিশীলিত মানুষ (শিল্পী হয়ে উঠতে না পারলেও) থাকা উচিত। আমি সেটাই দাবি করি। এই কুৎসিত হুমকি দেওয়া আপনার মুখে মানায়? যদি মনে করেন এটা করে আপনি তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের কাছের হবেন তাহলে জানবেন তাঁরাও আপনার এই দ্বিচারিতাকে মনে মনে ঘৃণা করেন। নেত্রী হওয়া বাদ দিন, আগে তো ভদ্রমহিলা হন। আপনাদের মত সো কলড অ্যাক্ট্রেস টার্নড পলিটিশিয়ানদের দেখে লজ্জায় আমাদের মাথা কাটা যায়।’ ছেড়ে কথা বলেননি বাম-সমর্থক শ্রীলেখা মিত্রও। কৌশানীর ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘উন্নয়নের ভাষা। জয় বাংলা। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, এমন সাংঘাতিক হুমকি দেখে আমি হতবাক। আমি সবাইকে অনুরোধ করব, ওর নামে নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানান।’ যদিও কৌশানী নিজে শুক্রবার রাতে লাইভ করে জানান, বিজেপির আইটি-সেল  ইচ্ছাকৃতভাবে তাঁর মন্তব্যকে বিকৃত করেছে। তিনি রাজ্যে মহিলাদের সুরক্ষা নিয়েই কথা বলছিলেন। দেশের বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলো থেকে শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কারণে পশ্চিমবঙ্গ মেয়েদের জন্য কতটা সুরক্ষিত সেটা বলতে গিয়েই ওটা তিনি বলেছেন। যদিও ততক্ষণে ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। বিদ্বেষ থেকে কু মন্তব্য সবটাই ততক্ষণে শুরু হয়ে গিয়েছে কৌশানীর বিরুদ্ধে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর