,



অপরাধ প্রতিরোধে সমাজের সবার সহযোগিতা প্রয়োজন -মিঠামইনের ওসি

রফিকুল ইসলামঃ ঘরে-বাইরে সব জায়গায় নৈতিকতার অবক্ষয় চলছে। সমাজে নৈতিক অবক্ষয়ের ডাল-পালা মেললে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং, যৌন নিপীড়ন, নারী ও শিশু নির্যাতন, প্রতারণা, পাচার, বাল্যবিয়ে, যৌতুক, প্রতারণা, চুরি, ডাকাতিসহ অন্যায়-অপরাধ বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। এরকম একটা অবক্ষয়ের মাঝে সমাজিক অঙ্গনের প্রত্যেককেই যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে আসতে হবে। সবাই মিলে উড়াতে হবে নৈতিকতার পতাকা।

গতকাল শুক্রবার (১১ জুন) কিশোরগঞ্জের মিঠামইন থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মো. জাকির রব্বানী সামাজিক ব্যাধিসমূহ দূর করতে গোপদিঘী বাজার মসজিদে জুম্মার খুৎবার আগে মুসল্লিদের প্রতি এই আহ্বান জানান।

ওসি জাকির রব্বানী এসব অপরাধের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে উল্লেখ করে বলেন, জনতা-পুলিশ একসঙ্গে কাজ করলে সামাজিক ব্যাধিসমূহ নির্মূল করা সম্ভব হবে।

তিনি নিরাপত্তার তাগিদেই মানুষ সমাজে একত্রে বসবাস করে থাকে বলে মন্তব্য করে বলেন, সমাজের ভিত্তিই হচ্ছে নৈতিক মূল্যবোধ। সমাজ নিষ্ঠা, সততা, সহমর্মিতা, শৃঙ্খলা, সহযোগিতাসহ বেশ কতগুলো নীতিমালা মেনে চলে এবং সমাজ এ সমস্ত নিয়মনীতি দ্বারা ব্যক্তিকে পরিচালিত করে, যা সমাজকে ধরে রাখে। তাছাড়া সমাজ বহুবিধ উদ্দেশ্যও সাধন করে এবং মানুষের সামাজিক কল্যাণই সমাজের উদ্দেশ্য বলে অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন তিনি।

বাংলাদেশ পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজির আহমেদ বিপিএম (বার) সারাদেশব্যাপী পুলিশের সেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন যুগোপযোগী কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) এবং জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম  এর নির্দেশে সকল সার্কেল ও থানা পর্যায়ে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

কিশোরগঞ্জ জেলায় পুলিশ সুপার (এসপি) মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) জঙ্গিবাদের কুফল, মাদকের ক্ষতির প্রভাব, যৌন নিপীড়ন, নারী ও শিশু নির্যাতন, ইভটিজিং, বাল্যবিয়ে, শিশু শ্রম, গুজব বন্ধ এবং সামাজিক অবক্ষয় প্রতিরোধে করণীয় নিয়ে সর্বস্তরের জনসাধারণের মাঝে সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করে চলেছেন।

এলাকার যে কোনো অপরাধ সম্পর্কে কেউ কিছু জানতে পারলে থানা পুলিশকে জানাতে বলা হচ্ছে এবং সেক্ষেত্রে সংবাদদাতার পরিচয় গোপন রাখা হবে মর্মে তাদের আশ্বস্তও করা হচ্ছে। উপস্থিত লোকজনদেরকে সাইবার ক্রাইম ও গুজব সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হচ্ছে, যাতে করে তারা এহেন অপরাধ শনাক্তসহ নিজেদের এ ধরনের অপরাধের সাথে যুক্ত হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে। তাছাড়াও বর্তমানে পুলিশের আধুনিক সেবা 999 নম্বর ব্যবহার সম্পর্কেও অবগত করে যাচ্ছে।

এরূপ ধারাবাহিকতায় কিশোরগঞ্জের জেলার প্রত্যেক থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ থানা এলাকার  বিভিন্ন মসজিদে জুম্মার নামাজে খুৎবার আগে উল্লেখিত সচেতনতামূলক বক্তব্য রেখে যাচ্ছেন।

গোপদিঘী বাজার জামে মসজিদের ইমাম হযরত মাওলানা এহতেশামুল হক (দেওয়ান আলী) তাঁর বয়ানে মূল্যবোধের গোড়াপত্তন পরিবারে হলেও ধর্মীয় অনুশাসন অনুসরণের মধ্যেই এর সমাধান নিহিত রয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

জেলা পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন, থানাকেন্দ্রিক জনগণের সেবাকে জনগণের সহজীকরণের লক্ষ্যে সর্বাত্মক প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ (ওসি) দ্বারপ্রান্তে গিয়ে জনসচেতনতামূলক কাজ করে যাচ্ছেন এবং থানায় গিয়েও সাধারণ মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে সেবা পায় সেটাও তারা নিশ্চিত করবেন।  #

সহযোগী সম্পাদক, আজকের সূর্যোদয়, ঢাকা।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর