,



Pure or desi ghee (ghi), clarified melted butter. Healthy fats bulletproof diet concept or paleo style plan. Glass jars, silver spoon on vintage sackcloth. Wooden boards background, copy space

যেভাবে ঘি কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ ঘি সুপারফুড হিসেবে পরিচিত। খাবারের স্বাদকে দ্বিগুণ বাড়িয়ে দিতে ঘি অতুলনীয়। তবে ঘি কেবল খাবারের স্বাদই বাড়ায় না, এটি আমাদের অনেক রোগ থেকেও মুক্ত রাখে। এছাড়া ওজন কমাতেও ঘি বেশ কার্যকর।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন, যারা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগেন। মূলত পেটে অস্বস্তি বোধ করা থেকে শুরু করে পেট ব্যথার অন্যতম কারণ হচ্ছে কোষ্ঠকাঠিন্য। এ ধরনের সমস্যা কমানোর জন্য অনেকেই হারবাল পদ্ধতি অনুসরণ করেন।

তবে আপনি জানলে অবাক হবেন যে, কোষ্ঠকাঠিন্য কমানোর জন্য ঘি মেশানো পানি বেশ কার্যকরী।

তবে এটা খাওয়ার কিছু পদ্ধতি আছে। ঘিয়ে থাকা বাট্রিক অ্যাসিড কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়। এই অ্যাসিড বিপাকেরও উন্নতি করে। এটি পেটে ব্যথা, গ্যাস, পেটের ফোলাভাব এবং কোষ্ঠকাঠিন্যজনিত অন্যান্য সমস্যাও দূর করে।

ঘিয়ে থাকা প্রাকৃতিক ল্যাক্সাটিভ উপাদান হাড় শক্তিশালী করে। এছাড়া এটি ঘুম ও ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখে।

যেভাবে ঘি খাবেন

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে ২০০ মিলিলিটার পরিমাণে হালকা গরম পানিতে এক চামচ ঘি মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে পান করুন। এতে ধীরে ধীরে এ সমস্যা কমে যাবে।

যখন হজম পদ্ধতি যেমন- অন্ত্র এবং কোলন রুক্ষ, শক্ত এবং শুষ্ক হয়ে যায় তখন কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দেয়। ঘি’য়ে থাকা তেলতেলে বৈশিষ্ট্য গোটা পদ্ধতিকে নরম করতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে শরীর থেকে বর্জ্য বের করতে সহায়তা করে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর