,



shutdown sign, grungy style, vector illustration

লকডাউনে’র পর এবার আসছে ‘শাটডাউন’! সামাজিক মাধ্যমে যত প্রশ্ন

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ লকডাউন’, ‘বিশেষ লকডাউন’, ‘সর্বাত্মক লকডাউন’, ‘অঞ্চলভিত্তিক লকডাউন’ ইত্যাদি নামে ‘লকডাউন’ এর বেশ কয়েকটি সংস্করণ চালু করেও তেমন কোনো ফল না পাওয়ায় এবার ‘শাটডাউন’ দেওয়ার সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। বর্তমান করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রোগের বিস্তার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়া ঠেকাতে এবং জনগণের জীবনের ক্ষতি প্রতিরোধে গতকাল বৃহস্পতিবার কমিটি এই সুপারিশ করে।

কিন্তু কমিটির এই নতুন ধরনের ‘ডাউন’ নিয়ে নানা জল্পনা দেখা দিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, আসলে এই ‘শাটডাউনে’র বাস্তবিক ধরণটা কেমন হবে। তা কি তামাশায় রূপ নিয়ে আগের লকডাউনের মতোই পরিণতি ভোগ করবে নাকি ভাইরাসের বিস্তার রোধে কার্যকর ভূমিকা রাখবে? আর শাটডাউনে কি খোলা থাকবে, কি বন্ধ থাকবে সেই প্রশ্নই করেছেন অনেকে।

যদিও সুপারিশে বলা হয়েছে, জরুরি সেবা ছাড়া যানবাহন, অফিস-আদালতসহ সবকিছু বন্ধ রাখা প্রয়োজন। এ ব্যবস্থা কঠোরভাবে পালন করতে না পারলে আমাদের যত প্রস্তুতিই থাকুক না কেন স্বাস্থ্য ব্যবস্থা অপ্রতুল হয়ে পড়বে।

লকডাউনের নতুন সংস্করণ কেমন হবে তা নিয়ে প্রশ্ন রেখে জৈষ্ঠ্য সাংবাদিক, কলামিস্ট ও গবেষক মেহেদী হাসান পলাশ লিখেছেন, ‘‘গত দেড় বছর ধইরা হেরিকেন- টেলিস্কোপ লাগাইয়া লকডাউনের লক খুঁইজ্যা পাই নাই। অহন আবার শুনতাছি, সরকারে নাকি শাট ডাউন দিবো। তয় এইডা কি বোতামসহ হইবো, না বোতাম ছাড়া ?’’

এস আর রাসেল আহামেদ লিখেছেন, ‘‘লকডাউন, শাটডাউন, এই সব.. দিয়ে করোনা নিয়ন্ত্রণ হয়না। এইসব দিয়ে যদি করোনা নিয়ন্ত্রণ হতো তাহলে বহু আগেই পৃথীবি থেকে করোনা ভাইরাস চলে যেতো। পৃথীবির কোন দেশেই এখন লকডাউন শাটডাউন নাই।দুইদিন পর পর আমাদের দেশে এই ডাউন, ওপেন, আবার ডাউন ইদুর খেলা চলছে। করোনা ভাইরাস এটা আর পৃথীবি থেকে যাবেনা। কারন সাম্রাজ্যবাদী শক্তি এই জুজুর ভয় দেখিয়ে সারা বিশ্বে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ব্যাবসার ফাঁদ পেতে বসেছে। করোনা কে সঙ্গে নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে। শাটডাউন, লকডাউন করোনা ভাইরাস দুরে সরায় এটা অবৈজ্ঞানিক পদ্ধতি, ইতিমধ্যে তা বহু দেশ বুজতে পেরে প্রত্যাহার করেছে।’’

আবুবক্কর সিদ্দিক লিখেছেন, ‘‘দেশের মানুষ এতদিন লকডাউনের অর্থ ব্যাপক ভাবে বুঝতে পেরেছে এখন আবার শাটডাউনের অর্থ নতুন করে শিখবে। জাতির সাথে এই তামাশার দরকার ছিল না।’’

জমিরুদ্দিনের আব্দুল্লাহর প্রশ্ন, ‘‘এটি লকডাউনের কততম সংস্করণ? সারা দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। এর মধ্যে কোনো কোনো জেলায় স্থানীয়ভাবে লকডাউন দেওয়া হয়েছে। এখন আবার আসছেন সর্বাত্মক লকডাউন দিতে! লকডাউনের যদি এসব আজাইরা বিষয়াদি বোঝার ক্ষমতা থাকতো, তাইলে কলাগাছে রশি লটকিয়ে নিজেরে অসংখ্যবার ফাঁসিতে ঝুলাইত।’’

রুবেল বনিক শাটডাউনের ব্যাখা দিয়ে লিখেছেন, ‘‘শার্টডাউন মানে সম্পূর্ন বন্ধ করে দেওয়া। যা কোন ভাবেই খোলার সুযোগ থাকবে না,কোন দিক বিবেচনায় থাকবে না। যতমক্ষন পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ মনে করবে না ততক্ষন পর্যন্ত বন্ধ।’’

রাকিবুল হাসান মজা করে লিখেছেন, ‘‘সরকারের ডিশিসন গুলো হলো জিন্সের প্যান্ট পরে চেইন খোলার মতো। সরকার মনে হয় গার্মেন্টস মালিকদের কাছে জিম্মি। মানুষ কিভাবে মানবে। অফিস খোলা রেখে জেলায় জেলায় লকডাউন, এটা কিভাবে সম্ভব!’’

সামসুদিদ্ন সামসু লিখেছেন, ‘‘এই সিদ্ধান্তকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি পাশাপাশি আরেকটি কথা বলতে চাচ্ছি যে এক জেলা থেকে অন্য জেলার মধ্যে যেন মানুষ ঢুকতে না পারে সেই দিকে সরকারকে খেয়াল রাখতে হবে মানুষ বেঁচে থাকলে চাকরি করতে পারবে এখন সরকার বলে দেব যে যেখানে আছে সেখানে অবস্থান করো।’’

জামান আহামেদ লিখেছেন, ‘‘লকডাউন শাটডাউন এগুলো বাদ দিয়ে মানুষকে সচেতন করুন, আর বহির্বিশ্ব থেকে করোনার ভ্যাকসিন আমদানি করার চেষ্টা করুন, সমগ্র বাংলাদেশকে টিকার আওতায় আনুন, আর আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীনের নিকট প্রার্থনা করুন আল্লাহ পাক যেন এই মহামারী থেকে আমাদেরকে হেফাজত করেন।’’

মেহেদী হাসান বাবু লিখেছেন, ‘‘এবারের যে কোন পরীক্ষার্থীদের জন্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। যা পরীক্ষায় আসতে পারে, প্রশ্ন দুটি হল :১। লকডাউন কাকে বলে? লকডাউন কত প্রকার ও কিকি? বিস্তারিত লিখ। ২। লকডাউন ও শাটডাউনের মধ্যে পার্থক্য কি ?’’

মাসুদ সরকার লিখেছেন, ‘‘আমরা আপামর জনসাধারণ লকডাউন আর শাটডাউন অবশ্যই মানব। ১/ যারা দিন আনে দিন খায় তাদের ডাল ভাতের ব্যবস্থা সরকারকে করতে হবে। ২/ এ চৌদ্দ দিনের জন্য দেশে রাজনীতি বন্ধ করতে হবে।৩/সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দিতে হবে যাতে করে মানুষ হেংকি মেংকি না করতে পারে। তবেই হয়তবা লকডাউন শাটডাউন সফল হবে ইনশাআল্লাহ।’’

প্রসেনজিৎ কুমার লিখেছেন, ‘‘সব সিদ্ধান্ত যদি অন্য দেশের থেকে দেখে শিখতে হয় তাহলে আপনাদের শুধু শুধু বেতন ভাতা দিয়ে সরকারের উচ্চপদস্থ কর্তা করে রাখার কি দরকার ।সব কিছু তো আমার মিডিয়ার মাধ্যমে পেয়ে যেতাম ।আর অন্য দেশের দেখে যখন সিদ্ধান্ত নেন তখন অন্য দেশের মত লকডাউনে মানুষের জন্য যথেষ্ট খাবারের ব্যবস্থা করলেই তো পারেন।’’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর