,



খুলনা বিভাগে আরও ৩২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৬৭

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসের একদিনে দ্বিতীয় বারের মতো সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে বিভাগে ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে নতুন করে রেকর্ড ১ হাজার ৩৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩ হাজার ৩৭১টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ৪০ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. রাশেদা সুলতানা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এরআগে খুলনা বিভাগে গত ২৩ জুন করোনায় সর্বোচ্চ ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আর সোমবার (২৮ জুন) ৩০ জনের মৃত্যু হয়।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে যশোরে সর্বোচ্চ আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বাগেরহাটে পাঁচজন, খুলনায় চারজন, কুষ্টিয়ায় চারজন, নড়াইলে তিনজন মেহেরপুরে দুইজন, চুয়াডাঙ্গায় দুজন, মাগুরায় দুইজন, ঝিনাইদহে একজন এবং সাতক্ষীরায় একজন মারা গেছেন।

খুলনার দুই হাসপাতালে করোনায় আরও ১১ জনের মৃত্যু

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৫৪ হাজার ৯৯৮ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৪৩ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৭ হাজার ৪৩৭ জন।

খুলনা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. শেখ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা জেলায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। খুলনা জেলা ও মহানগরীতে ১ হাজার ১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩৭৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। যা মোট নমুনা পরীক্ষার ৩৭ শতাংশ। এরমধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজে একজন ও ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে মহানগরীর তিনজন ও উপজেলার একজন রয়েছেন।

 

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩৭৮ জনের। এ পর্যন্ত জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৩২১ জনের। এ সময় মারা গেছেন ২৫০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৭৫৮ জন।

বাগেরহাটে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৬ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ২৯৯ জনের। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৮৪ জন।

খুলনা বিভাগে করোনায় মৃত্যু হাজার ছাড়ালোসাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৩৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৩৩৩ জন এবং মারা গেছেন ৬৮ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৪৩৬ জন।

যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৩০৮ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১২ হাজার ৮৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে যশোরে সর্বোচ্চ ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট মারা গেছেন ১৪২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৮৮৯ জন।

ঝিনাইদহে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৯৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ২৩০ জন। মোট মারা গেছেন ৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৯৩ জন।

 

মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৫৩৮ জন। মোট মারা গেছেন ২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২৮৭ জন।

নড়াইলে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৫১ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৬৩২ জন। মোট মারা গেছেন ৪৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৭ জন।

কুষ্টিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৮০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৫৩৬ জন। মোট মারা গেছেন ২০২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৪৭৩ জন।

ঝিনাইদহে করেনায় ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৩

চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৯৯ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ২৬৬ জন। মোট মারা গেছেন ৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৭৩ জন।

মেহেরপুরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৮০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৭৫৬ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১৬৭ জন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর