,



সুযোগ-সুবিধা সীমিত রাখার নীতিগত সিদ্ধান্ত রোহিঙ্গা

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ প্রাণভয়ে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের ‘শরণার্থী’ হিসেবে স্বীকৃতি না দিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জোর সুপারিশ করেছে এ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। ‘শরণার্থীদের’ আশ্রয়দাতা দেশে অন্তর্ভুক্ত করাসহ বিশ্বব্যাংক যে একগুচ্ছ সংস্কার প্রস্তাব দিয়েছে, সেটাকে ছলেবলে ও ধানাইপানাই করে মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেওয়ার ‘চালাকি’ হিসেবে দেখছে সংসদীয় কমিটি। বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে এ ব্যাপারে মন্ত্রণালয়কে সতর্ক করে কমিটি বলেছে—রোহিঙ্গা ইস্যুতে কোনোভাবেই বিশ্বব্যাংকের ঘাপলার চক্করে পড়া যাবে না।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান জানান, বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু ও বিশ্বব্যাংকের কথিত সংস্কার প্রস্তাব নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। রোহিঙ্গাদের জন্য বাড়িঘর তৈরি, শিক্ষার সুযোগ, জমি কেনা ও কর্মসংস্থানের সুযোগের নামে বিশ্বব্যাংক যেন ধানাইপানাই না করতে পারে সে বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সতর্ক থাকতে বলেছে সংসদীয় কমিটি। আমরা কমিটিকে বলেছি—রোহিঙ্গাদের সেটেলমেন্টের জন্য বিশ্বব্যাংকের এসব প্রস্তাবনা মানা যাবে না। সংসদীয় কমিটি সুস্পষ্টভাবে এর বিরোধিতা করেছে।

সংসদীয় কমিটির বৈঠকে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে একটি প্রতিবেদন দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ইস্যুকে পাশ কাটিয়ে পশ্চিমা দেশসমূহ ও জাতিসংঘের সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহ দীর্ঘদিন ধরে ক্যাম্পগুলোতে রোহিঙ্গাদের জীবনমান উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্প গ্রহণে বেশি আগ্রহী হয়ে উঠছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ক্যাম্পগুলোতে জীবনমান ও সুযোগ-সুবিধাসমূহ বৃদ্ধি, তাদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, কারিগরি প্রশিক্ষণ, সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও নানাবিধ বহুবার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণের বিষয়ে বেশি তত্পর হয়ে উঠছে। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রত্যাবাসনের স্বার্থে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের জীবনমান ও সুযোগ-সুবিধাসমূহ যৌক্তিক ও সীমিত পর্যায়ে রাখার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রস্তাব করলে প্রধানমন্ত্রী তাতে অনুমোদন দিয়েছেন।’

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিতে চান সংসদীয় কমিটির সদস্যরা:

 ফারুক খান জানান, কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি ছোট দল জাতিসংঘের আসন্ন সাধারণ অধিবেশনে যোগ দেবেন। কমিটির সভাপতি ফারুক খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য— পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, নুরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স, আবদুল মজিদ খান ও হাবিবে মিল্লাত অংশ নেন।
Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর