,



ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফিরলেন রোনালদো

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের দলবদলের গুঞ্জনটা চলছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। মাঝে নিজেই তাতে ঢেলে দিয়েছিলেন জল। অবশেষে গ্রীষ্মকালীন দলবদলের একদম শেষে এসে চমক দেখিয়ে ফিরলেন পুরোনো ঠিকানা ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে।

যে ক্লাবের হয়ে মহাতারকা হয়ে ওঠার পথে শুরু করেছিলেন যাত্রা, সাফল্যমণ্ডিত ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে প্রিয় সেই ক্লাবে ফিরলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ইউভেন্তুস ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিয়েছেন পর্তুগিজ এই ফরোয়ার্ড।

এক টুইটে শনিবার ঘরের ছেলে ঘরে ফেরার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইউনাইটেড। চুক্তির মেয়াদ ও ট্রান্সফার ফির বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

প্রিমিয়ার লিগের সফলতম দলটিতে প্রথম অধ্যায়ে ২৯২ ম্যাচে ১১৮ গোল করেন রোনালদো। দলটির হয়ে একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, তিনটি প্রিমিয়ার লিগ, দুটি লিগ কাপ ও একটি এফএ কাপ জেতেন তিনি।

২০০৯ সালের জুনে ইউনাইটেড থেকে রিয়াল মাদ্রিদে নাম লেখান রোনালদো। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে কাটান স্বপ্নের নয়টি মৌসুম। রিয়ালকে জেতান সম্ভাব্য সব কিছু; চ্যাম্পিয়ন্স লিগ চারবার, লা লিগা দুইবারসহ অনেক শিরোপা।

২০১৮ সালে বের্নাবেউ ছেড়ে ইউভেন্তুসে যোগ দেন রোনালদো। ইতালির দলটিতে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার এক বছর আগেই আবার ফিরলেন পুরোনো ঠিকানায়।

সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারে মোট ৩০টি শিরোপা জিতেছেন ৩৬ বছর বয়সী এই তারকা। ইংল্যান্ড, স্পেন ও ইতালিতে সব মিলিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন পাঁচবার, চারবার জিতেছেন ক্লাব বিশ্বকাপ, লিগ শিরোপা সাতটি। দেশের হয়ে জিতেছেন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ।

রোনালদোর দলবদল নিয়ে গুঞ্জনের শুরুটা হয়েছিল সময়ের আরেক সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসির পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই। সিটি ছাড়াও তার সম্ভাব্য গন্ত্যবের তালিকায় এসেছিল সাবেক ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ ও পিএসজির নামও। এর প্রতিক্রিয়ায় পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার নিজেই জানিয়েছিলেন, সবই গুঞ্জন।

তাতেও থেমে থাকেনি ৩৬ বয়সী এই ফুটবলারের ক্লাব ছাড়ার খবর। সবশেষ সংবাদমাধ্যমের খবরে আসে, সেরি আতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে উদিনেজের বিপক্ষে রোনালদো নিজেকে শুরুর একাদশে না রাখতে অনুরোধ করেন ইউভেন্তসকে। এরপর শোনা যায়, রোনালদোর চুক্তির ব্যাপারে পেপ গুয়ার্দিওলার দলের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করেছেন তার এজেন্ট জর্জ মেন্দেস।

পাঁচবারের বর্ষসেরা এই তারকার সিটিতে যোগ দেওয়াতে বাধা না দিলেও তুরিনের ক্লাবটি জানিয়েছিল, তাদের শর্ত মেনেই কেবল ইউভেন্তস ছাড়তে পারবেন তিনি।
ইউভেন্তসের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১৩৪ ম্যাচ খেলে ১০১ গোল করেন রোনালদো। এই সময়ে দলটির হয়ে জিতেছেন দুইটি সেরি আ, দুইটি ইতালিয়ান সুপার কাপ ও একটি ইতালিয়ান কাপ।

২০১৯ সালে সেরি আর বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন পর্তুগাল অধিনায়ক।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর