,



‘রাষ্ট্র মেরামতে’ বিএনপির ২৭ দফা রূপরেখা যেভাবে দেখছে আ.লীগ

টানা দুইবারের বেশি প্রধানমন্ত্রী পদে দায়িত্ব পালন না করার নিয়ম চালুসহ বিদ্যমান রাষ্ট্র ব্যবস্থা মেরামতে বিএনপির ২৭ দফা রূপরেখাকে ‘হাস্যকর’ হিসেবে দেখছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

দলটির নেতারা বলছেন, বিএনপি-জামায়াত রাষ্ট্রকে ধ্বংস করেছে। এখন আবার তারাই রাষ্ট্রের মেরামতের কথা বলছে। এখন দেশের সবকিছুই ভালো আছে। তাই মেরামতের কিছু নেই।

সোমবার বিকালে ঢাকার গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলের বলরুমে এক বিশেষ সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন রাষ্ট্র মেরামতে ২৭ দফা রূপরেখা উপস্থাপন করেন।

এসময় যুক্তরাজ্য থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। আর বিএনপি সমমনা দলের রাজনীতিবিদ, বিভিন্ন পেশাজীবী ও সাংবাদিকরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

তবে এর আগেই সকালে বিএনপির রূপরেখা নিয়ে কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আর দুপুরে বক্তব্য আসে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত রাষ্ট্রকে ধ্বংস করে এখন তারাই আবার মেরামতের কথা বলে, যেটা হাস্যকর। বিএনপি-জামায়াত রাষ্ট্রকে ধ্বংস করেছে, আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে তা মেরামত করেছেন।’

যারা (বিএনপি) রাষ্ট্রকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে তারা কী করে দেশের মেরামত করে প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দেশ মেরামত করেছেন শেখ হাসিনা। বিএনপির আমল থেকে এখন সব কিছু ভালো আছে। দেশের মধ্যে যা মেরামত, তা আওয়ামী লীগই করছে।’

অন্যদিকে বিএনপি দেশে ‘মার্শাল ডেমোক্রেসি’ আনতে চায় কি না প্রশ্ন রাখেন হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘বিএনপি যে রাষ্ট্র সংস্কারের কথা বলছে, দেশকে তারা জিয়াউর রহমানের মার্শাল ডেমোক্রেসিতে নিয়ে যেতে চায় কি না সেটিই হচ্ছে আমার প্রশ্ন।’

‘আসলে যাদের জন্ম অগণতান্ত্রিকভাবে, তারা যখন রাষ্ট্র সংস্কারের কথা বলে তখন মানুষ ভাবে বিএনপি আবার মার্শাল ডেমোক্রেসি ফিরিয়ে আনতে চায়’—যোগ করেন তথ্যমন্ত্রী।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর