দ্বিতীয় দিনের প্রথম বলেই শেষ বাংলাদেশের ইনিংস

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ বাংলাদেশ প্রথম দিন শেষ করেছিল ৩১০ রানে। এই রান করতে হারিয়েছিল ৯ উইকেট। আজ শেষ উইকেটে শরীফুল-তাইজুল বাংলাদেশের ইনিংস কতদুর নিয়ে যাবেন তা দেখার অপেক্ষায় ছিল ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু হতাশ করলেন শরীফুল।

দ্বিতীয় দিনের প্রথম বলেই টিম সাউদির বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পরেন শরীফুল। আর তাতেই কোনো রান যোগ না করেই শেষ হলো বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস।

গতকাল সাদা পোশাকের এই সিরিজ দিয়েই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের যাত্রা শুরু করছে দুই দল। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্টে কিউইদের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

প্রথম সেশনে দুই উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ তুলে ১০৪ রান। দলীয় ৩৯ রানে আউট হন ওপেনার জাকির হাসান। এজাজ প্যাটেলের বলে বোল্ড হওয়ার আগে জাকির করেন ১২ রান।

এরপর ৩ নম্বরে নেমে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে থাকেন নাজমুল। আরেক ওপেনার মাহমুদুলকে নিয়ে গড়েন ৫৩ রানের জুটি। তবে শেষ পর্যন্ত তাঁর ইনিংসের ‘অপমৃত্যু’ ঘটে ফিলিপসের ফুলটস আর কেইন উইলিয়ামসনের ক্যাচে। আউট হওয়ার আগে ২ চার ও ৩ ছক্কায় নাজমুল করেন ৩৫ বলে ৩৭ রান। নাজমুলের বিদায়ে ক্রিজে আসেন মুমিনুল হক।

তৃতীয় উইকেটের জুটিতে জয়-মুমিনুল যোগ করেন ৮৮ রান। ৩৭ রান করে মুমিনুল ফিলিপসের বলে উইকেট রক্ষক টম ব্লান্ডেলের কাছে ক্যাচ দিলে ভাঙ্গে এই জুটি। এরপর আর বেশিক্ষন টিকেটে পারেনি মাহমুদুল। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ১৪ রানের দুরত্বে থাকতে সোধীর বলে ফেরেনে তিনিও।

প্রথম দুই সেশনে বাংলাদেশ এগিয়ে থাকলেও ধস নামে শেষ সেশনে। চা বিরতির পর এসে টাইগারদের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম আউট হন মাত্র ১২ রান করে।

এরপর যথাক্রমে শাহাদাত হোসেন দিপু ২৪, মেহেদি হাসান মিরাজ ২০, নুরুল হোসেন সোহান ২৯, নাঈম হাসান ১৬ রান করে আউট হন। সেই সঙ্গে তাইজুল ইসলাম ৮ রানে এবং শরিফুল ইসাল ১৩ রানে অপরাজিত থেকে প্রথম দিন শেষ করেন।

কিউইদের হয়ে ফিলিপসের শিকার ৪ উইকেট। অথচ বল হাতে তার অতটা সুখ্যাতি নেই বললেই চলে। উইকেটরক্ষক ব্যাটার হিসেবেই নিজেকে পরিচয় দেন তিনি। কিন্তু গতকাল বাংলাদেশের বিপক্ষে যেন পুরোদস্তুর স্পিনারই বনে গেলেন। কিংবদন্তি স্পিনারদের মতো উইকেটে বল টার্ন করিয়েছেন ফিলিপস। এছাড়া দুটি করে উইকেট কাইল জেমিসন ও এজাজের।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর