‘আপনি চশমা পরে যা দেখেন, না পরেও আপনার চেয়ে ভালো দেখি’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এবারের আসরে সাকিব আল হাসান রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলছেন। ২, ২, ০—রান সাকিব আল হাসানের। রংপুর রাইডার্সের দলের এক ম্যাচে খেলেননি আর দুই ম্যাচে ব্যাটিংই করেননি। ফলে সাকিবের পারফরম্যান্স নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনা তৈরি হয়। অনেকের ধারণা— চোখের সমস্যার কারণে এই অলরাউন্ডার হোঁচট খাচ্ছেন।

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শনিবার সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন সাকিব আল হাসান।

এক সাংবাদিক সাকিবের কাছে জানতে চান, ‘চোখের জন্য আপনার ব্যাট করতে সমস্যা হচ্ছে?

জবাবে সাকিব বলেন, আপনাকে কে বলেছে চোখের জন্য সমস্যা হচ্ছে?

সাকিবের চোখে এক ধরনের সমস্যা যে হচ্ছে, সেটি অবশ্য বিসিবিই বিবৃতি দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছে। সাকিবকে একপর্যায়ে সেটা জানানোও হলো। এ তারকা অবশ্য বললেন, তার চোখে কোনো সমস্যা নেই। তবে ব্যাট করতে কেন সমস্যা হচ্ছে, সেটি খুঁজে পাচ্ছেন না।

এদিকে এবার বিপিএল শুরুর আগে লন্ডনে চোখের চিকিৎসা করাতে যান সাকিব। বিপিএলে এক ম্যাচ খেলেই যান সিঙ্গাপুরে। এক ম্যাচে তাকে পায়নি দল। ফিরে এসে খেলতে থাকলেও কেবল বোলার হিসেবে দেখা যাচ্ছিল তাকে। শুরুতে ব্যাট করেছেন আটে, পরে এক ম্যাচে ৯ জন আউট হলেও তিনি ব্যাট করতে নামেননি। শনিবার সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে চার নম্বরে নেমেছিলেন। প্রথম বলেই কোনো রান না করে ফিরে যান।

উপরে ব্যাট করতে নামলেও স্বস্তি ফেরা নির্ভর করছে রান পাওয়ার ওপর, এটি তো বলা মুশকিল। রান যত করব স্বস্তির জায়গা বাড়বে। রান যতক্ষণ না করছি, ওই ছন্দটাও আসবে না, স্বস্তির জায়গাও থাকবে না। এটা খুবই স্বাভাবিক।

পুরো সংবাদ সম্মেলন জুড়ে বেশিরভাগ প্রশ্ন হলো তার চোখ নিয়ে। বর্তমানে যে সমস্যায় তিনি ভুগছেন সেটি ঠিক হওয়া নিয়ে আছে অনিশ্চয়তা। তবে এ সমস্যাটা যে এত গুরুতর কিছুও না তাও জানালেন প্রশ্নকর্তার দিকে ইঙ্গিত করে, জানি না আমার ধারণা নেই যে এটা কখনো ঠিক হওয়ার সম্ভাবনা আছে। আর এই যে বারবার চোখ, চোখ বলছেন চোখের কোনো সমস্যা নেই। আপনি চশমা পরে যা দেখেন, চশমা না পরে আপনার চেয়ে ভালো দেখি। কী সমস্যা আছে সেটা খোঁজার চেষ্টা করছি।

চোখে কোনো সমস্যা নেই তা হলে কোনো কারণে ব্যাট করতে ভুগছেন তিনি? এই উত্তর সাকিবেরও অজানা— এটাই তো আমি খুঁজতেছি। আমি বের করার চেষ্টা করছি। বাকিরাও চেষ্টা করছে।

বিসিবি বিবৃতিতে জানিয়েছিল নানান পরীক্ষা ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শের পর নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, সাকিব ভুগছেন ‘এক্ট্রাফোভিয়াল সেন্ট্রাল সেরিওস কোরিওরেটিনোপ্যাথি’ বা সিএসআর নামক সমস্যায়। এই ধরনের সমস্যা মানসিক চাপের কারণেও হতে পারে বলে বলেন কোনো কোনো বিশেষজ্ঞ।

সাকিবও তার মানসিক চাপের বিষয় উড়িয়ে দেননি, এটি তো আপনার একটা ভালো প্রশ্ন যে বেড়ে যাচ্ছে কিনা। মাঝে মাঝে আমারও চিন্তা হয় এটা করলে বেশি হয়ে যাচ্ছে কিনা।

অলরাউন্ডার হয়েও কেবল বোলার হিসেবে খেলায় রংপুরকে পুরোটা দিতে পারছেন না। তবু রংপুর রাইডার্স যেভাবে তার পাশে আছে তাতে তাদের কৃতজ্ঞতা জানান তিনি, জীবনে কখনো এ রকম করিনি। একটা দিক নিয়ে খেলতে হচ্ছে। রংপুর রাইডার্সকে ধন্যবাদ। তারা যে প্রত্যাশা নিয়ে আমাকে দলে নিয়েছিল আমি অর্ধেক করতে পারছি।

 

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর