পুতিনের কাছে মাথা নত করব না: বাইডেন

রাশিয়ার কাছে যুক্তরাষ্ট্র কখনোই মাথা নত করবে না বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে স্টেট ইউনিয়ন ভাষণে তিনি এই মন্তব্য করেন।

চলমান যুদ্ধে রাশিয়ার সঙ্গে পিছিয়ে পড়েছে ইউক্রেন। রুশ বাহিনীকে মোকাবিলায় বিভিন্ন দেশের কাছে অস্ত্র সহায়তা চাচ্ছে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

এ অবস্থায় আবারও ইউক্রেনের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। দেশটিকে অতিরিক্ত তহবিল দেওয়ার জন্য কংগ্রেসকে চাপ দেন তিনি। এমনকি কখনোই পুতিনের কাছে যুক্তরাষ্ট্র মাথা নত করবে না বলেও মন্তব্য করেন বাইডেন।

স্টেট ইউনিয়ন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক পুরনো একটি রীতি। দেশটির সাংবিধানিক রীতি অনুযায়ী নির্ধারিত সময় পর পর কংগ্রেসকে স্টেট ইউনিয়ন সম্পর্কে তথ্য দেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে প্রেসিডেন্টের।

কৌতুক দিয়ে বক্তৃতা শুরু করার পর নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ শুরু করেন তিনি। একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র ‘আক্রমণের’ মুখে রয়েছে বলেও সতর্ক করেন বাইডেন।

নাটকীয়ভাবে ভাষণের শুরুতেই বাইডেন বলেন যে, তিনি ‘কংগ্রেসকে জাগিয়ে তুলতে এবং আমেরিকান জনগণকে বিপদের বিষয়ে সতর্ক করতে’ চান।

তিনি বলেন, ঘরে (যুক্তরাষ্ট্র) গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা আজ আক্রমণের শিকার হয়েছে। পরিস্থিতি যা জটিল করে তুলেছে তা হলো, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র আজ দেশে এবং বিদেশে উভয় ক্ষেত্রেই আক্রমণের মুখে রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাম্প্রতিক এক মন্তব্যের কড়া সমালোচনাও করেন বাইডেন।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর চাঁদা দিতে ব্যর্থ সদস্যদেশে হামলা চালাতে তিনি রাশিয়াকে উৎসাহিত করবেন। ট্রাম্পের এই অবস্থানকে ‘বিপজ্জনক’ ও ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে অভিহিত করেন বাইডেন।

যদিও বক্তব্যে ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করেননি বাইডেন। বরং বারবার তাকে ‘আমার পূর্বসূরি, একজন সাবেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

বাইডেন ন্যাটো ও ইউরোপীয় নিরাপত্তার প্রতি অব্যাহত অঙ্গীকারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। বলেছেন, যদি ইউক্রেন থেকে যুক্তরাষ্ট্র দূরে চলে যায়, তাহলে ইউরোপ ঝুঁকিতে পড়বে। আমরা সরে যাব না।

এদিকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনকে ১০ হাজার ড্রোন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী গ্রান্ট শ্যাপসের কিয়েভ সফরকালে বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

এক বিবৃতিতে ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, অত্যাধুনিক ড্রোন তৈরিতে আরও ১২৫ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় করছে দেশটি। এর মধ্য দিয়ে ইউক্রেনের জন্য সব মিলিয়ে যুক্তরাজ্যের ড্রোন প্যাকেজের পরিমাণ দাঁড়াচ্ছে ৩২৫ মিলিয়ন পাউন্ড।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর