আন্দোলন চলবে: মির্জা আব্বাস

সরকারকে ‘দখলদার’ উল্লেখ করে তাদের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। তিনি বলেন, আমরা বলতে চাই, গণতান্ত্রিক আন্দোলন কখনো ব্যর্থ হয়নি। সাময়িকভাবে বাধাগ্রস্থ হতে পারে কিন্তু সার্বিকভাবে কখনো ব্যর্থ হয়নি। আজকে না হয় কালকে এই ফ্যাসিস্ট দখলদার সরকারের পতন ঘটবেই এই জনতার হাতে। এদের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।

রাজধানীর নয়াপল্টনে শনিবার দুপুরে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য এসব কথা বলেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, আজকের কর্মসূচি দ্রব্যমূল্যের ঊধর্বগতির প্রতিবাদে।  নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে, বাড়ছে, বাড়বে। আমরা এটাই জনগণকে জানাতে চাই শুধুমাত্র… আর কিছুই না। আমাদের এই চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলন, আমাদের এই অহিংস আন্দোলন, গণতন্ত্র উদ্ধারের আন্দোলন, বাক-স্বাধীনতার আন্দোলন, ভোটের অধিকারের আন্দোলন সারা বাংলাদেশে চলবে।

মির্জা আব্বাস বলেন, মসোলিন-স্ট্যালিনরা বহুদিন রাজত্ব করেছে। কিন্তু পরিণতি হয়েছে ভয়াবহ। জনগনের আন্দোলনের মুখে কোনো ফ্যাসিস্ট সরকার টিকে থাকতে পারে নাই।আজকে যে সরকার আছে এটাকে সরকার বলা যাবে না। এটা হচ্ছে ভিন্ন ভাষায় বলা যেতে পারে এটা সরকার নয়। এরা জোর করে জনগণের ভোটের বাইরে ক্ষমতায় টিকে আছে। ক্ষমতায় টিকে আছে লুটপাট করার জন্য, ক্ষমতায় টিকে আছে চুরি করার জন্য, ক্ষমতায় টিকে আছে এদেশের মানুষের কষ্ট দেওয়ার জন্য।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দ্রব্যমূল্যের ঊধর্বগতি, বিদ্যুত, গ্যাসে, পানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে শনিবার সারাদেশে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকায় মহানগর দক্ষিন বিএনপির উদ্যোগে এই সমাবেশ হয়। পরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য পথচারিদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ করেন।

মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জাসাসের জাকির হোসেন রোকন, স্বেচ্ছোসেবক দলের সাদরেজ জামান, ছাত্র দলের রাকিবুল ইসলাম রাকিব, নাসির উদ্দিন নাসির প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। আরো ছিলেন -বিএনপির রফিক শিকদার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, তাঁতী দলের আবুল কালাম আজাদ, মহানগর দক্ষিনের ই্উনুস মৃধা, নাদিয়া পাঠান পাপনসহ মহানগর নেতারা।
 

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর