,



এবার ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা

চলতি দশম জাতীয় সংসদের একাদশ অধিবেশন বসছে বুধবার বিকালে। এই বাজেট অধিবেশনে বৃহস্পতিবার ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উত্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বুধবার বিকাল পাঁচটায় অধিবেশন শুরুর আগে সংসদের কার্য-উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের কার্যাবলী নির্ধারণ করা হবে। গত ১৫ মে এই অধিবেশন আহ্বান করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এরইমধ্যে জানিয়েছেন, এবার বাজেটের আকার তিন লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার বেশি হবে।

গত কয়েকবারের মত এবারও অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতার সময় পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেখানো হবে। এবার নতুন করে যুক্ত হচ্ছে সাত মিনিটের একটি ভিডিওচিত্র, যেখানে সরকারের সামগ্রিক সাফল্য


তুলে ধরা হবে।

বাজেট উপস্থাপনের আগে এই ভিডিওচিত্র সংসদ কক্ষে দেখানোর ব্যবস্থা করতে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে রোববার সংসদ সচিবালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

বাজেট সংসদে উপস্থাপনের আগে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদন নেওয়া হবে। প্রথা অনুযায়ী ওইদিন মন্ত্রিসভার বৈঠক সংসদ ভবনেই হওয়ার কথা রয়েছে। মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পর তা রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ওই সময় সংসদ ভবনে থাকার কথা রয়েছে। রেওয়াজ অনুযায়ী তার সংসদ কক্ষে ‘রাষ্ট্রপতির বক্সে’ বসে বাজেট উপস্থাপন দেখার কথা রয়েছে।

এদিকে অধিবেশন শুরুর দিন সদ্য প্রয়াত সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে রেওয়াজ অনুযায়ী সংসদের বৈঠক মুলতুবি করা হবে। তার আগে প্রমোদ মানকিনের জীবনের ওপর আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা।

এদিকে শুরু হতে যাওয়া অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য মঙ্গলবার পর্যন্ত সংসদ সচিবালয়ে নতুন দুটি বিল জমা পড়েছে। এগুলো হলো- ‘রেলওয়ে সম্পত্তি (অবৈধ দখল উদ্ধার) বিল’ এবং ‘বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফার কাউন্সিল বিল’।

সংসদসহ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নিয়ে কোনো বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) বিরূপ মন্তব্য করলে তা অপরাধ বিবেচনায় নিয়ে সংস্থাটির নিবন্ধন বাতিলের ক্ষমতা সরকারের কাছে রাখার বিধান রেখে বৈদেশিক অনুদান (স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রম) বিল এ অধিবেশনে পাস হওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়া আগের অধিবেশনগুলোতে উত্থাপিত ১৮টি বিল পাসের প্রক্রিয়ায় রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর