,



ভাগ্য খুলছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের, সৌদি লোক নেবে ৫ লাখ

ভাগ্য খুলছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের, সৌদি আরব লোক নেবে ৫ লাখ।  সৌদি আরবে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌদি শ্রম ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ড. মোফারিস সাদ আল হোকাবাইনের সৌজন্য সাক্ষাতে শ্রমিক নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় জেদ্দার রয়েল কনফারেন্স হোটেলে উভয়ের এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার মদিনার হিলটন হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই আলোচনার বিভিন্ন দিক সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য সচিব ইহসানুল করিম ও সৌদির রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্।

তারা বলেন, প্রবাসী জনশক্তি নিয়োগের ক্ষেত্রে সৌদি সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে দক্ষ পেশাজীবী যেমন চিকিৎসক, প্রকৌশলী ও শিক্ষকদের নিয়োগ দেয়া।

এরই মধ্যে সৌদি সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের একটি টিমকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনী নির্দেশনা দেয়া হয়েছে এবং তারা খুব শিগগিরই বাংলাদেশ সফরে আসছেন বলে জানান ইহসানুল করিম।

রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্ সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকা ও রিয়াদের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন, বিনিয়োগ ও বাণিজ্যবৃদ্ধিসহ

৬ টি চুক্তি এবং সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষরিত হবে।

এ চুক্তির মধ্যদিয়ে দু’দেশের ভ্রাতৃপ্রতীম সুসম্পর্ক আরো জোরদার হবে।  আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক বিষয়েও দু’দেশের ঐকমত্য সুদৃঢ় হবে।  উভয় দেশের নাগরিকদের ভিসা জটিলতা দূরীকরণ ও কূটনীতিকদের ভিসার ক্ষেত্রে ছাড় দেয়ার বিষয়টিও প্রাধান্য পাবে বলে জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরবের বাদশাহ্ সালমান বিন আব্দুল আজিজের আমন্ত্রণে পাঁচদিনের সরকারি সফরে গত শুক্রবার জেদ্দায় পৌঁছেন।  তিনি পবিত্র ওমরাহ্ পালনের পর বাদশাহর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন।

পরে তিনি ওআইসির মহাসচিব ও এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্টের সঙ্গেও বৈঠক করেন।  প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌদি প্রিন্স মোহাম্মদ ইবনে সালমান, ডেপুটি ক্রাউন প্রিন্স ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী আল জুবায়ের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, মক্কা ও মদিনার গভর্নরসহ গুরুত্বপূর্ণ সৌদি কর্মকর্তারা সাক্ষাৎ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেদ্দা থেকে সোমবার সকালে পবিত্র নগরী মদিনায় পৌঁছে মহানবী হযরত মুহম্মদ (সা.)-এর রওজা মোবারক জিয়ারত করেন।

পরে প্রধানমন্ত্রী সেখানে মসজিদ-ই-নববীতে জোহরের নামাজ আদায় করেন।  পরে তিনি একই মসজিদে আসর, মাগরিব ও তারাবির নামাজ আদায় করেন।

পাঁচদিনের সরকারি সফরে বর্তমানে তিনি সৌদি আরবে অবস্থান করছেন।  মদিনার গভর্নর যুবরাজ ফয়সাল বিন সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ স্থানীয় সময় সকাল সোয়া ১১টায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন আব্দুল আজিজ বিমান বন্দরের রয়েল লাউঞ্চে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বিমান বন্দরে পৌঁছার পর একটি মোটর শোভাযাত্রায় তাকে মদিনা হিলটনে নিয়ে যাওয়া হয়। মদিনা অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী মদিনা হিলটনেই অবস্থান করেন।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গীদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী  এ এইচ মাহমুদ আলী রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে দেশের উদ্দেশ্যে মদিনায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন আব্দুল আজিজ বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর