,



মেসি একটা দৈত্য

ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি প্রথম ম্যাচ। দ্বিতীয় ম্যাচের ৬১ মিনিটে যখন বদলি হিসেবে নামলেন তখন ১-০ গোলে এগিয়ে আর্জেন্টিনা। দশজনের দল নিয়েও লড়াই করে যাচ্ছিল দুর্বল পানামা। কিন্তু নেমেই সব ওলট পালট করে দিলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। ইনজুরি থেকে ফিরে এসে বদলি হিসেবে নেমে মাত্র ২৬ মিনিটে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে আর্জেন্টিনাকে ৫-০ গোলের বড় জয় এনে দেন মেসি। অনেকটা দৈত্যসুলভ পারফরম্যান্স দিয়েই যেন নিজের প্রত্যাবর্তনকে স্মরণীয় করে রাখলেন ক্ষুদে যাদুকর।

ম্যাচ শেষে পানামা দলের কোচ হার্নান দারিও গোমেজের সহজ সরল স্বীকারোক্তি। ‘মেসি নামার আগে ম্যাচে কোন ব্যবধান ছিল না। মেসি একটা দৈত্য। যদি আপনি মেসির আশাপাশে কোন ভুল করেন তাহলে সেই ভুলের মাশুল দিতে হবে আপনাকে।’

ম্যাচের প্রথমার্ধেই ১০ জনের দলে পরিণত হয় পানামা। আনিবাল গোদোয় লাল কার্ড পেয়ে মাঠ ছাড়লে আরো রক্ষণাত্মক হয়ে পড়ে দলটি। পানামার কোচ বলেন, ‘১০ জনের দল নিয়ে খেলা এবং পরবর্তীতে বিপক্ষ দলের এমন পারফরম্যান্স আমাদের জন্য ভীতিকর। আর্জেন্টিনা পানামাকে এমনিতেই হারাতে পারতো। তাদের দলে অসাধারণ সব ফুটবলার রয়েছে।’

তবে স্কোরলাইন আরো বড় হতে পারতো বলে অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি। আর্জেন্টিনার জয়ের পরেও চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ডি মারিয়ার ইনজুরি। প্রথমার্ধেই ডি মারিয়া মাসল ইনজুরির কারণে মাঠ ছাড়েন। তবে ইনজুরি তেমন গুরুতর নয় বলে জানিয়েছে আর্জেন্টিনার ফুটবলের কর্মকর্তারা।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর