,



কলকাতার ইতিহাসে শীর্ষ ছবির তালিকায় শাকিবের ‘শিকারি’ ও ‘নবাব’

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ গেল বছরে যৌথ-প্রযোজনার ‘শিকারি’ ছবির মধ্য দিয়ে কলকাতার সিনেমায় নাম লেখান দেশের সুপারস্টার অভিনেতা শাকিব খান। প্রথম ছবি দিয়েই তিনি সেখানে জোরদার একটা অবস্থান তৈরি করে ফেলেন। সেখানকার শীর্ষস্থানীয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে তার উপর চোখ পড়ে বাঘা বাঘা নির্মাতাদেরও। যার ফলশ্রুতি চলতি বছরে ফের যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নবাব’ দিয়ে কলকাতায় আলোড়ন ফেলে দেয় ছবিটি। আর এবার শাকিবের সেই ‘নবাব’ ছবিটিই জায়গা করে নিলো কলকাতার ইতিহাসে ব্যবসাসফল শীর্ষ দশ সিনেমার তালিকায়!

গেল বছরে ‘শিকারি’র মধ্য দিয়ে কলকাতায় পা রেখেই মাৎ করে চলেছেন ঢাকাই সিনেমার তারকা অভিনেতা শাকিব খান। চলতি বছরে কলকাতার একাধিক প্রযোজকের সিনেমায় অভিনয় করেন শাকিব। এরমধ্যে গেল ঈদুল ফিতরে মুক্তি পেয়েছে তার আলোচিত ‘নবাব’ ছবিটি। যা এরইমধ্যে কলকাতার ইতিহাসে সর্বোচ্চ আয় করা সিনেমাগুলোর মধ্যে স্থান করে নিয়েছে।

 

সেপ্টেম্বরের প্রথম দিনেই কলকাতার ব্যবসাসফল ছবির তালিকা হালনাগাদ করা হয়েছে উইকিপিডিয়াতে। যেখানে কলকাতার ইতিহাসে সর্বোচ্চ আয়কারী মোট তেইশটি সিনেমার নাম দেয়া হয়। অথচ সবচেয়ে বিস্ময়ের ব্যাপার হলো মোট তেইশটি সিনেমার মধ্যে দুইটি সিনেমায় শাকিব খানের!

সর্বোচ্চ আয় করা মোট তেইশটি ছবির তালিকায় শাকিবের ‘নবাব’ আছে ছয় নম্বর অবস্থানে। আর ‘শিকারি’ ছবিটি আছে ২২ নম্বরে। ৯ কোটি ১০ লাখ রুপি করে ‘নবাব’ ছয় এবং সাড়ে পাঁচ কোটি রূপি আয় করে ২২ নম্বরে আছে ‘শিকারি’।

তালিকায় প্রথমে আছে কলকাতার জনপ্রিয় নায়ক দেব অভিনীত কমলেম্বর মুখার্জীর তুমুল আলোচিত ছবি ‘চাঁদের পাহাড়’। ১৫ কোটি রুপি ব্যয়ে নির্মিত ছবির আয় ২০ কোটি রুপি। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে বস-টু। তারকা অভিনেতা জিৎ অভিনীত ছবির নির্মাণ ব্যয় সাড়ে ৬ কোটি রুপি হলেও ছবিটি মোট আয় করেছে ১০ কোটি ৩০ লাখ। এরপর যথাক্রমে আছে পাগলু (৯ কোটি ৯২ লাখ), সাথী (৯ কোটি ৭৮ লাখ), পরান যায় জ্বলিয়া রে (৯ কোটি ৪৮ লাখ)। তালিকায় শাকিব খানের নবাব- এর পরে আছে রংবাজ [কলকাতা] (৯কোটি), গেম (৯ কোটি), প্রাক্তন (সাড়ে ৮ কোটি) এবং চ্যাম্প (৮ কোটি)।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর