,



এখনো জ্বলছে অশান্ত শৈলকূপা, ঘরছাড়া বহু মানুষ

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শেষ হয়েছে বেশ ক’দিন। তবে সর্বনাশা এই নির্বাচন সহিংসতার যে আগুন বয়ে এনেছিল, তা এখনো জ্বলছে। এখনো প্রতিদিনই জ্বলছে কারো না কারো বাড়ি। আতঙ্কে বাড়িঘর ছেড়েছেন বহু মানুষ। কবে পরিস্থিতি শান্ত হবে কেউ বলতে পারছে না।

রাতের আধারে ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার দুধসর ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের শ্রীকান্ত বিশ্বাস (৮০) কে দোকান ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এঘটনায় শুক্রবার দুপুরে ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও শৈলকূপা-১ আসনের এমপি আব্দুল হাই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, ষষ্ঠ ধাপের ইউপি নির্বাচনে শৈলকূপা উপজেলার দুধসর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সায়ুব আলী জোয়ার্দ্দারের সাথে লড়াই করে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিল্টন জোয়ার্দ্দার পরাজিত হয়।

এর জের ধরে নির্বাচনী পরবর্তী সহিংসতায় কচুয়া গ্রামের শ্রীকান্ত বিশ্বাসের দোকান ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে আওয়ামীলীগ মনোনীত বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থক কচুয়া গ্রামেরই রনজিৎ, সমীর, প্রতাপ, ধলু, জটো, অশোক, পরিমল ও অন্তরসহ অনেকে।

অপরদিকে একই ইউনিয়নে ফলিয়া গ্রামের তোবারক মেম্বারের বাড়ির জানালা দরজাসহ বেশ কয়েকটি বাড়ি ভাংচুর চালানো হয়েছে। এসময় তারা ৩টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে।

এদের অত্যাচারে প্রায় ৩০/৩৫ জন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে রয়েছে বলে জানান কচুয়া গ্রামের নির্যাতিত পরিতা রানী, বিমল ও অমল ।

এব্যাপারে চেয়ারম্যান সায়ুব আলী জোয়ার্দ্দার বলেন, এমপি আব্দুল হাই-আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিল্টন জোয়ার্দ্দার পক্ষ নিয়ে শ্রীকান্ত বিশ্বাসকে উস্কিয়ে দিয়ে নিজেই নিজের দোকান ঘর পুড়িয়ে নাটক করছেন।

এব্যাপারে ঝিনাইদহের শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক ভাবে এমপির সাহেবের সাথে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। রাতের আধারে কে বা কারা দোকানঘরটি পুড়িয়ে দিয়েছে ঘটনাটি সঠিক। তবে অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর