,



ঈদকে সামনে রেখে ইনজেকশন-পাউডার দিয়ে ফুলানো হচ্ছে গরু

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ঈদকে সামনে রেখে ইনজেকশন ও পাউডার জাতীয় ভিটামিন প্রয়োগ করে ফুলানো হচ্ছে গরু। অধিক মুনাফা লাভের আশায় এক শ্রেণীর অসাধু ফরিয়ারি গরু ব্যবসায়ীরা দেদারসে এসব কাজ কারবার করছেন। বাদ পড়ছে না গরু পালনকারীরাও, তারা অধিক মুনাফার স্বপ্ন নিয়ে এসব ক্ষতিকর ভিটামিন প্রয়োগে ঝুঁকছেন।

অবলা এ পশুকে ফুলাতে পশু চিকিৎসকদের প্ররোচনায় বিভিন্ন কোম্পানির ভিটামিন জাতীয় ঔষধ প্রয়োগ করা হচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানায়। ইনজেকশন ও পাউডার প্রয়োগে চোখে পড়ছে শহর সহ গ্রামগঞ্জে অর্থ লোভী গরু পালনকারীদের বাড়িতে।

গরু মোটা তাজা করণ বিষয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা (ইউএলও) মোঃ আবুল কালাম আজাদ এর নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এদিকে সামনে ঈদকে টার্গেট করে কম দামি ও অল্প বয়সী গরু কিনে মোটা তাজা করণের মাধ্যমে চড়া দামে বিক্রয়ের আভাস পাওয়া গেছে। বর্তমানে পৌর শহরের গবাদি পশুর ঔষধ দোকানগুলোতে রেকর্ড পরিমাণ অবৈধ ভাবে মোটা তাজা করণ ইনজেকশন, ঔষধ, বিভিন্ন ভিটামিন জাতীয় পাউডার উচ্চ মূল্যে বিক্রয় করছেন।

এর মধ্যে এমোভিট- জি, ডিজিটাপ, এসল, মেটাফস, ট্রেসল, মেগাভিট- ডি মজুদ রয়েছে। এছাড়াও ষ্ট্রেরয়েড জাতীয় হরমোন, পামবড়ি বিষয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদারকি টিম বাড়ি বাড়ি গিয়ে এসব তদারকি করার কথা থাকলেও এ উপজেলা কোনটিই নেই। এখানে রয়েছে সরিষের ভূত।

অপরদিকে কিছু অল্প শিক্ষিত লোকজন সাময়িক ভাবে পশু চিকিৎসকের ট্রেনিং নিয়ে উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তরে গিয়ে তাদের চিকিৎসা দিতে দেখা যায়। তাছাড়া শহর সহ গ্রামাঞ্চলে হরহামেসেই এরা অর্থের বিনিময়ে চিকিৎসা দিয়ে আসছে। পক্ষান্তরে অবৈধ আয়ের উৎসকারী ব্যক্তি ও ঈদ আমাজের লোকজনের মধ্যে মোটা তাজা গরু কিনতে লক্ষ্য করা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর