,



কিংবদন্তি শচীন দেব বর্মণের প্রয়াণ

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভাল, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাঙালী কণ্ঠর পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিনে’।

৩১ অক্টোবর, ২০১৭, মঙ্গলবার। ১৬ কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যু দিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৮৯১ – জাপানে প্রবল ভূমিকম্পে তিন হাজারের বেশি প্রাণহানি।
১৯২০ – ভারতের প্রথম শ্রমিক সংগঠন নিখিল ভারত ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেস প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৯৮৪ – ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী নয়াদিল্লিতে নিজের দেহরক্ষীর গুলিতে নিহত হন।
১৯৯২ – ৩৬০ বছর পর গ্যালিলিও গ্যালিলির মতবাদ রোমান ক্যাথলিক চার্চ স্বীকার করে।

জন্ম
১৭৯৫ – জন কিটস, ব্রিটিশ কবি।
১৮২৮ – জোসেফ সোয়ান, ইংরেজ রসায়নবিদ ও বৈদ্যুতিক বাতির উদ্ভাবক।
১৮৭৫ – বল্লভভাই প্যাটেল, ভারতীয় পণ্ডিত ও জাতীয়তাবাদী নেতা।
১৮৮৭ – চিয়াং কাইশেক, চীনের রাষ্ট্রনায়ক।
১৯৪৪ – কিংকি ফ্রিড্‌ম্যান, মার্কিন সংগীতশিল্পী, গীতিকার, লেখক, রাজনীতিবিদ ও কলাম লেখক।

মৃত্যু
১৯৭৫ – শচীন দেববর্মণ, উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী ও সুরকার। ১৯০৬ সালের ১ অক্টোবর কুমিল্লায় জন্ম নেওয়া শচীন ছিলেন ত্রিপুরার চন্দ্রবংশীয় মাণিক্য রাজপরিবারের সন্তান। তার ছেলে রাহুল দেববর্মণ ভারতের বিখ্যাত সংগীত পরিচালক এবং সুরকার ছিলেন। তার ছাত্রী এবং পরবর্তী সময়ে সহধর্মিণী মীরা দেববর্মণও গীতিকার হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন। তার পুত্রবধূ আশা ভোঁসলে সংগীতজগতের এক উজ্জ্বল নাম। শচীনের গাওয়া অথবা সুর করা গানের মধ্যে রয়েছে- ‘তুমি এসেছিলে পরশু’, ‘বাঁশি শুনে আর কাজ নাই’, ‘কে যাস রে ভাটিগাঙ’, ‘নিশিথে যাইওরে ফুলবনে’, ‘শোনো গো দখিন হাওয়া’, ‘রঙিলা রঙিলা’, ‘ঝিলমিল ঝিলমিল’, ‘নিটল পায়ে’, ‘বর্ণে গন্ধে

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর