,



গণপূর্ত অধিদফতরের সক্ষমতা বেড়েছে

গণপূর্ত অধিদফতরের কাজের মান আগের তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করেছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

আজ বুধবার গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন অধিদফতরের বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। গণপূর্ত অধিদফতরের মাধ্যমে বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্য প্রতিবছর এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, গণপূর্ত অধিদফতর চট্টগ্রামে আয়কর বিভাগের ৪০ তলা ভবন নির্মাণ করছে। এটি গণপূর্ত অধিদফতরের সক্ষমতার স্বাক্ষর। আগে গণপূর্ত অধিদফতর ছয়তলার বেশি উঁচু ভবন নির্মাণ করতে পারতো না। কাজের গুণগত মান বজায় রেখে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ করলে গণপূর্ত অধিদফতরের মর্যাদা এবং কাজের পরিমাণ আরো বৃদ্ধি পাবে।

তিনি আরো বলেন, আজিমপুর এবং মতিঝিলে সরকারি কর্মকর্তাদের আবাসনের জন্য গণপূর্ত অধিদফতরের মাধ্যমে ২০ তলা ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। বেইলী রোডে জাজেস কোয়ার্টার্স এবং সচিবদের আবাসনের জন্যও সুউঁচ্চ ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ভবনগুলোও হবে ২০ তলা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে বড় মাত্রার ভূমিকম্পের আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞগণ। জনসাধারণের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে গণপূর্ত অধিদফতর ভূমিকম্পসহনীয় ভবন নির্মাণ এবং নির্মিত ভবনকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে কাজ করছে। গণপূর্ত অধিদফতরের মাধ্যমে নির্মিত ভবন হয়তো মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্পে ক্ষতগ্রিস্ত হবে না, কিন্তু অন্যান্যদের ভবনের ক্ষেত্রে এ আশ্বাস দেয়া কঠিন।

গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান মুন্সীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার।

দুই দিন ব্যাপী এ সম্মেলনে অধিদফতরের প্রধান কার্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও প্রতিটি জেলার নির্বাহী প্রকৌশলীগণ অংশ নিচ্ছেন।

সম্মেলনে ঢাকাসহ সারা দেশে বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি এবং সমস্যার বিষয়ে পর্যালোচনা করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর