,



নতুন বছরে খালেদার যত প্রত্যাশা

দেশবাসী ও দলের নেতাকর্মীদের নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আশা করেছেন, নতুন বছরটি সবার জীবনে বয়ে আনবে বিজয়, অনাবিল সুখ ও শান্তি। দূর হবে সব অন্যায়-উৎপীড়ন, নির্যাতন। বন্ধ হবে হত্যা, গুম, খুন, যুদ্ধ বিগ্রহ ও অমানবিকতাসহ সকল ধরনের দমনমূলক নৃশংসতা।

২০১৬ সালের শেষ দিন শনিবার দুপুরে গণমাধ্যমে নতুন বছর উপলক্ষে দেয়া বাণীতে খালেদা জিয়া এমন প্রত্যাশার কথা জানান। তিনি বলেন, ‘আমি হৃত গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য বাংলাদেশের সংগ্রামী জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানাচ্ছি। সকল গণতান্ত্রিক শক্তির মিলিত সংগ্রামে বহুদলীয় গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করতে হবে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘১ জানুয়ারি প্রতিবছর নতুন বার্তা নিয়ে আমাদের দ্বারে উপস্থিত হয়। পুরনো বছরের সকল ব্যর্থতা, গ্লানি, হতাশাকে ঝেড়ে ফেলে নবউদ্যোমে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা যোগায় নববর্ষ। পাশাপাশি অতীতের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সুন্দর ভবিষ্যত বিনির্মাণে তৎপর হতে পারলে নতুন বছরটি হয়ে উঠতে পারে সাফল্যময়।’

বিএনপি নেত্রী বলেন, ‘গেল বছরটি এখন আমাদের মনে স্মৃতি হয়ে থাকবে। গত বছরের বেশকিছু তিক্ত অভিজ্ঞতা, সজন হারানোর বেদনা এবং অধিকার হারানোর যন্ত্রণা আগামী বছরে আমাদের একদিকে যেমন বেদনার্ত করবে আবার অন্যদিকে নতুন উদ্যোমে এগিয়ে যেতে তাগিদ সৃষ্টি করবে। বাংলাদেশসহ বিশ্বময় সংঘাত ঘটনা প্রবাহে নতুন বছরটিকে গণতন্ত্র, শান্তি ও অগ্রগতির বছরে পরিণত করতে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।’

এদিকে এক টুইটবার্তায় সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে খালেদা জিয়া বলেছেন,২০১৭ হোক সাম্য, মৈত্রী ও স্বাধীনতার বছর। ফিরে আসুক মানুষের অধিকার, শান্তি ও গণতন্ত্র।’

মির্জা ফখরুলের শুভেচ্ছা

অপর এক বাণীতে জনগণকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও। এতে তিনি বলেন, ‘নতুন বছরটি হয়ে উঠুক আনন্দময়, আমি এ কামনা করি।’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর