,



আগষ্টের প্রথম প্রহরে ইবি ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্বলন

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ ১৯৭৫ সালের আগস্ট মাস বাঙালি জাতির জীবনে এক কলঙ্কময়, শোক ও বেদনার অধ্যায়। তাই এ মাসটিকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ রাখতে আগষ্টের প্রথম প্রহরে মোমবাতি প্রজ্বলন ও শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন কর্মসূচী পালন করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগ।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শোকাবহ আগস্টের প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিবের পাদদেশে এসব কর্মসূচী পালন করে ছাত্রলীগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. আনিছুর রহমান প্রথমে মোমবাতি জ্বালিয়ে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন।

এরপর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সকল শহীদ ও ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিবের পাদদেশে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন ও এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন শেষে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের সঞ্চালনায় ও সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা।

সমাবেশে বক্তরা বলেন, আগষ্ট মাস বাঙালির জীবনে একটি কালো অধ্যায়। আর একটি কুচক্রী মহল এই অধ্যায়ের রচয়িতা। আমরা এতদিনেও এ কুচক্রী মহলের মূলৎপাটন করতে পুরোপুরি সক্ষম হতে পারিনি। তাই শোকের মাসে প্রত্যয় ও শপথে শোককে শক্তিতে পরিনত করার অভয়মন্ত্রে জাতিকে উদ্দীপিত হতে হবে।

এসময় তারা বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকারীদের মধ্যে যাদেরকে এখনো শাস্তির আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়নি, তাদেরকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্যকরের জোর দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর