,



দুই হাজার বছরের পুরনো কবরে স্মার্টফোন

বাঙালী কন্ঠ ডেস্কঃ দুই হাজরেরও বেশি বছরের প্রাচীন সমাধি থেকে পাওয়া গেছে ‘স্মার্টফোন’! রাশিয়ার বৃহত্তম বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে ‘আলা’ জলাধারের নিচে সন্ধান পাওয়া এক তরুণীর দেহাবশেষের সঙ্গে ছিল স্মার্টফোন সদৃশ ওই বস্তু।

সম্প্রতি সায়ানো-শুশেনস্কায়া বাঁধের কাছে ওই জলাধারের পানি ছেড়ে দেয়ার পর সন্ধান মেলে প্রাচীন সমাধির। বিশেষজ্ঞদের দাবি, সমাধিটি ২ হাজার ১৩৭ বছর আগে জিঅংনু আমলের এক ধনী ও সম্ভ্রান্ত হুন তরুণীর।

তিনি দক্ষিণ রাশিয়ার গ্রামীণ অঞ্চলের বাসিন্দা ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, আইফোনের মতো বস্তুটি ওই নারীর পোশাকে এঁটে থাকা বেল্টের বকলস হিসেবে ব্যবহৃত হতো।

প্রত্নতাত্ত্বিক দলের প্রধান পাভেল লিয়াসের মতে, ‘জিঅংনু আমলের এই হুন যাযাবর সম্প্রদায়ের সমাধিতে পাওয়া আইফোন সদৃশ বস্তুটি নিঃসন্দেহে আবিষ্কারের অন্যতম আকর্ষণ।

নাতাশা নামের ওই নারীর পোশাকেই একমাত্র এমন বেল্ট দেখা গেছে। বেল্টের নকশায় থাকা চিনা উঝু মুদ্রাগুলো সমাধির সময়কাল নির্ধারণে সহায়ক হয়েছে।’ স্মার্টফোন আকৃতির বকলসটি লম্বায় প্রায় সাড়ে ৭ ইঞ্চি।

কালো জেমস্টোন জেটে তৈরি বর্গাকৃতির বকলসের ওপর লাল-সাদা পাথরের বিন্দু সারিবদ্ধভাবে বসানো রয়েছে। পুরনো কবরটির সন্ধান মিলেছে পানির ৫৬ ফুট নিচে। আশপাশে আরও কবর রয়েছে। দ্য সান।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর