,



হারটা লজ্জাজনক নয়, কষ্টদায়ক অবশ্যই

বাঙালী কন্ঠ ডেস্কঃ চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশকে একশতে কতো মার্কস দেবেন? সাকিবের সোজাসাপ্টা উত্তর, ‘শূন্য’।  আর আফগানিস্তানকে? ‘লেটার মার্কস।’

আরো একবার সাকিব সংবাদ সম্মেলনে। ম্যাচের আগের দিন থেকে শুরু করে ম্যাচের শেষ পর্যন্ত, ছয় দিনে সাকিব সংবাদ সম্মেলনে আসলেন চার বার। এমন সাকিবকে দেখেনি কেউ আগে।  সাকিব বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছেন। সংবাদ সম্মেলনে এসে খুব সাবলীলভাবে সামলাচ্ছেন সব প্রশ্ন।  উত্তরও দিচ্ছেন মাপা মাপা।

চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের যে পারফরম্যান্স তা মেনে নিতে পারছেন না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। বিশেষ করে কোনো ধরণের প্রতিদ্বন্দ্বীতা গড়তে না পারায় সাকিব হতাশ বেশি।  ২২৪ রানের বিশাল জয়ে আফগানিস্তানও বুঝিয়ে দিয়েছে তারা টেস্ট ক্রিকেটে নবীনতম সদস্য হলেও ফেলনার পাত্র নয়।

হারার ধরণে সাকিব এতোটাই কষ্ট পেয়েছেন যে বলতে দ্বিধা করেননি এমন কথা,‘এভাবে হারাটা খুবই খারাপ। খারাপের থেকে নিচে কোনো শব্দ থাকলে সেটাও ব্যবহার করতে পারেন! হতাশারও বলতে পারেন…আরও যত কিছু আছে নেতিবাচক কথা বলে দিতে পারেন যেগুলো আমি বলতে পারলাম না।’

শেষ দিন জয়ের জন্য আফগানিস্তানের লাগত মাত্র চার উইকেট।  বৃষ্টিতে প্রায় পুরোদিনই ভেস্তে গিয়েছিল। হার এড়াতে সাকিবদের মাঠে থাকতে হতো ৭০ মিনিট।  কিন্তু সাকিব, সৌম্য, মিরাজ, তাইজুলরা পারেননি দলের হার এড়াতে।  এ হারের মধ্য দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে দশ দলের বিপক্ষে হারের লজ্জার রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ। এমন অভিজ্ঞতা হয়নি অন্য কারো।  তবে এমন হারকে লজ্জাজনক বলতে নারাজ।  তবে কষ্টটা সাকিব গোপন রাখলেন না।

‘একটুও লজ্জাজনক বলে আমার কাছে মনে হয় না।  কষ্টদায়ক অবশ্যই।  এভাবে আমরা হারব আমরা চিন্তা করিনি। আসলে এমন পারফরম্যান্স হয়েছে যে হারাটা স্বাভাবিক। ওদের ক্রেডিট দিতে হবে অবশ্যই। ওরা ভালো খেলেছে। আমরা কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে পারিনি। ’ – বলেছেন সাকিব।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর