,



২৭ জনের মৃত্যু খুলনা বিভাগে

বাঙালী কন্ঠ ডেস্কঃ খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় সর্বশেষ শনিবার বেলা ১১টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৯ জন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার সাত জনে। এর মধ্যে ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।
খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. ফেরদৌসী আক্তার জানান, ১লা জুলাই থেকে ৫ই অক্টোবর পর্যন্ত বিভাগে ৯ হাজার ৭ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৪১৯ জন বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ৮ হাজার ১২৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। ৪৬০ জনকে বিভিন্ন স্থানে রেফার করা হয়েছে।
আক্রান্তদের মধ্যে খুলনার বিভিন্ন হাসপাতালে ২৩৮ জন, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক হাজার ৩১৫ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। এছাড়া বাগেরহাটে ২৯৮ জন, সাতক্ষীরায় ৮৩৮ জন, যশোরে তিন হাজার ১৬৯ জন, ঝিনাইদহে ৫৫৩ জন, মাগুরায় ৪৪৮ জন, নড়াইলে ৪৮০ জন, কুষ্টিয়ায় এক হাজার ৩১২ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১৩০ জন, মেহেরপুরে ২২৬ জন আক্রান্ত হন।

এখনো খুলনার বিভিন্ন হাসপাতালে তিনজন, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৭৮ জন, বাগেরহাটে চারজন, সাতক্ষীরায় ৩৪ জন, যশোরে ১৭৪ জন, ঝিনাইদহে ২৮ জন, মাগুরায় ১৫ জন, নড়াইলে ১০ জন, কুষ্টিয়ায় ৬৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় দু’জন ও মেহেরপুরে সাতজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
তিনি জানান, ৪ঠা অক্টোবর বেলা ১১টা থেকে ৫ অক্টোবর বেলা ১১টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭৯ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৮ জন, সাতক্ষীরায় ৫ জন, যশোরে ৩৪ জন, ঝিনাইদহে দু’জন, মাগুরায় একজন, নড়াইলে দু’জন, কুষ্টিয়ায় ১৩ জন, চুয়াডাঙ্গায় একজন ও মেহেরপুরে ছয়জন রয়েছে।
ডা. ফেরদৌসী আক্তার জানান, ডেঙ্গুরোগী শনাক্তের জন্য খুলনা বিভাগে পর্যাপ্ত কিটস মজুদ রয়েছে। এ বিভাগের ১০ জেলায় ১৬ হাজার ছয়শ’টি কিটস মজুদ রয়েছে। এর মধ্যে খুলনায় তিন হাজার ২৫৬টি, বাগেরহাটে ৭৩৪টি, সাতক্ষীরায় ৬৫৭টি, যশোরে দুই হাজার ৪৩১টি, ঝিনাইদহে দুই হাজার ৬৬১টি, মাগুরায় ৯৫৪টি, নড়াইলে ৯৯৩টি, কুষ্টিয়ায় ৪১৯টি, চুয়াডাঙ্গায় দুই হাজার ৬৭২টি ও মেহেরপুরে এক হাজার ৮২৩টি।
এই কর্মকর্তা জানান, এ পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৬ জন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে খুলনায় ১৫ জন, যশোরে চারজন, কুষ্টিয়ায় দু’জন, সাতক্ষীরায় দু’জন, মাগুরায় একজন, মেহেরপুরে একজন ও ঝিনাইদহে একজন রয়েছে।
আরও এক
নারীর মৃত্যু
খুলনায় রেখা মল্লিক (৪৫) নামের ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত এক নারীর মৃত্য হয়েছে। রোববার রাত পৌনে ১১টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। রেখা মল্লিক যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার চিত্ত মল্লিকের স্ত্রী। এ নিয়ে খুলনায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শিশু ও নারীসহ ১৬ জন মারা গেলেন। খুমেক হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরপি) ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস বলেন, রেখা মল্লিক শনিবার হাসপাতালের ডেঙ্গু ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছিলেন। রোববার রাত পৌনে ১১টায় তার মৃত্যু হয়। ডেঙ্গু ছাড়াও তিনি কিডনি সমস্যা ও হৃদরোগে ভুগছিলেন।
খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তর সূত্র জানায়, খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় এ পর্যন্ত ৯ হাজার ১১৫ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০৮ জন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর