,



নামাজে ভুল হয়ে গেলে সাহু সেজদা দেবেন কীভাবে

বাঙ্গালী কণ্ঠ ডেস্কঃ নামাজ মুসলমানদের প্রধান ইবাদত। অনেক সময় খেয়ালের ভুলে মানুষ নামাজে ভুল করে থাকে। নামাজে ভুল হয়ে গেলে বা নির্ধারিত কোনো রোকন আদায় করতে না পারলে কিংবা অতিরিক্ত করে ফেললে তা বিশুদ্ধ করতে সেজদা দিতে হয়। আর এটিই হলো সাহু সেজদা।

নামাজে অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য কেবল সাহু সেজদা দেয়া ওয়াজিব। যদি কোনো ফরজ তরক হয় তবে সাহু সেজদায় নামাজ শুদ্ধ হবে না। পুনরায় নামাজ পড়ে নিতে হবে।

অনেকেরই জানা নেই যে, সাহু সেজদা কী? কীভাবে সাহু সেজদা আদায় করতে হয়? সাহু সেজদা কি নামাজের মধ্যেই দিতে হয় নাকি নামাজ শেষ করে দিতে হয়? এ সেজদার জন্য আলাদা কোনো দোয়া আছে কি?

সাহু সেজদা হলো- নামাজে অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য যে সেজদা দেয়া হয়। ইচ্ছাকৃত ভুল করে সাহু সেজদা দিলে নামাজ হবে না। পুনরায় নামাজ আদায় করতে হবে। এ সেজদা নামাজের শেষ বৈঠকে আদায় করতে হয়। নামাজ শেষ করে পুনরায় আলাদা শুধু সেজদা করলে সাহু সেজদা আদায় হবে না।

সাহু সেজদা করবেন যেভাবে

যে নামাজে ভুল হয়, ওই নামাজে থাকা অবস্থায় শেষ বৈঠকে শুধু তাশাহহুদ (আত্তাহিয়্যাতু) পড়ে ডান দিকে সালাম ফেরাতে হয়। অতঃপর বাম দিকে সালাম না ফিরিয়ে ‘আল্লাহু আকবার’ বলে সেজদায় চলে যেতে হয়। নামাজের সেজদার মতো ২টি সেজদা আদায় করতে হয়।

২টি সেজদা আদায় করে পুনরায় তাশাহহুদ, দরূদ এবং দোয়া মাসুরা পড়ে সালাম ফেরানোর মাধ্যমে নামাজ সম্পন্ন করতে হয়।

যদি কেউ ৩/৪ রাকাআত বিশিষ্ট নামাজের প্রথম বা দ্বিতীয় রাকাআতে ভুল করে তবে তিনি প্রথম বৈঠকে সাহু সেজদা আদায় করবে না বরং শেষ বৈঠকে তাশাহহুদ পড়ার পর দরূদ পড়ার আগে ডান দিকে সালাম ফিরিয়ে সাহু সেজদা আদায় করবে।

সাহু সেজদার জন্য আলাদা কোনো দোয়া নেই। এ সেজদায়ও ৩/৫/৭ বার (سُبْحَانَ رَبِّىَ الْاَعْلَى) ‘সুব্‌হানা রাব্বিয়াল আলা’ তাসবিহ আদায় করতে হয়।

তবে সেজদায় কুরআন-সুন্নার সব দোয়া করা যায়। যদি কেউ কুরআন সুন্নায় বর্ণিত দোয়াগুলো জানে তবে সে দোয়া পড়তে বাধা নেই।

আবার দুই সাহু সেজদার মাঝেও দোয়া পড়া যায়। তাতেও কোনো বাধা নেই। হাদিসে এসেছে-
হজরত ইবনে আব্বার রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম দুই সেজদার মাঝে বলতেন-
اَللّهُمَّ اغْفِرْلِيْ وَارْحَمْنِي وَاهْدِنِيْ وَعَافِنِيْ وَارْزُقْنِيْ
উচ্চারণ : আল্লাহুম্মাগফিরলি, ওয়ারহামনি, ওয়াহদিনি, ওয়া আফিনি, ওয়ারযুকনি। (মুসলিম, মিশকাত)
অর্থ : হে আল্লাহ আপনি আমাকে মাফ করুন, আমাকে রহম করুন, আমাকে হেদায়েত দান করুন, আমাকে শান্তি দান করুন এবং আমাকে রিজিক দান করুন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নির্ভুল ও বিশুদ্ধভাবে একনিষ্ঠতার সঙ্গে নামাজ আদায় করার তাওফিক দান করুন। অনিচ্ছাকৃত কারো ভুল হয়ে গেলে যথাযথভাবে সাহু সেজদা আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর