,



সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে ধান-চাল কেনার আহ্বান জানালেন খাদ্যমন্ত্রী

আত্মশুদ্ধি করে নিজেকে তৈরি করব, নিজেরা দুর্নীতিমুক্ত হব, অন্যকে দুর্নীতিমুক্ত করব এবং এই খাদ্য অধিদফতরকে দুর্নীতিমুক্ত আলোকিত অধিদফতরে পরিণত করব’- এমন অঙ্গীকার ব্যক্ত করার আহ্বান জানালেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

তিনি বলেন, সবার আগে দুর্নীতিমুক্ত খাদ্য বিভাগ দেখতে চাই। আসন্ন আমন মৌসুমের ধান-চাল সংগ্রহে কর্মকর্তাদের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার আহ্বান জানান খাদ্যমন্ত্রী।

শনিবার রাজধানীর আইডিইবি ভবনে খাদ্য অধিদফতরের মাঠপর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীর সঙ্গে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়ন’ সম্পর্কিত এক কর্মশালায় তিনি এ আহ্বান জানান।

খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদ, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ওমর ফারুকসহ মন্ত্রণালয়, খাদ্য অধিদফতর ও মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যিনি লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে উঠে নীতি-নৈতিকতা এবং সততার সঙ্গে তার কাজ চালিয়ে যান তিনিই প্রকৃত সুখে আছেন। বর্তমান সরকার দুর্নীতিকে কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেবে না। দুর্নীতির বিষয়ে বর্তমান সরকারের অবস্থান জিরো টলারেন্স। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও সবাইকে শুদ্ধাচারি কর্মচারী হিসেবে দেখতে চান।’

এই শুদ্ধাচার কৌশলের মধ্যে সব শ্রেণির মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করতে পারলে কাঙ্ক্ষিত সফলতা অর্জন করা আরও সহজ হবে বলে মন্তব্য করেন সাধন চন্দ্র মজুমদার।

খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘খাদ্য বিভাগে নানা ধরনের অনিয়মের কথা শোনা যেত। আমরা ইতিমধ্যেই অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছি। বর্তমানে যে সব মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা, ওসি এলএসডি, খাদ্য পরিদর্শক ভালো কাজ করবেন তাদের দেশে এবং বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি যাদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যাবে তাদেরও শাস্তির আওতায় আনা হবে।’

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আসন্ন আমন সংগ্রহের মৌসুমে ধান-চাল সংগ্রহে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সবার সহযোগিতা পেলে আমরা নির্বিঘে এই আমন সংগ্রহ সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারব। এখন থেকে শপথ নেন আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে নিজেকে শুদ্ধ করে, পরিবর্তন করে, এই খাদ্য অধিদফতরকে দুর্নীতিমুক্ত, আলোকিত একটি অধিদফতরে পরিণত করার।’

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান বলেন, ‘কিছু ভুলভ্রান্তি এবং সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও বর্তমান সরকারের সময়ে বিশেষ করে বর্তমান খাদ্যমন্ত্রী দায়িত্ব নেয়ার পর খাদ্য বিভাগে অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। ভবিষ্যতেও এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে নিজেকে এই শুদ্ধাচারের মাধ্যমে পরিবর্তন করে।’

জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদ বলেন, ‘সর্বপ্রথম নিজেকে শুদ্ধাচারি হতে হবে। দায়িত্বটি পালন করার ক্ষেত্রে নিজেকে সৎ হতে হবে, নীতিবান হতে হবে। আপনি আপনার কর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকুন, সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করুন দেখবেন আপনার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষও আপনাকে সঠিক মূল্যায়ন করবেন।’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর