,



বিছানায় হাত-পা দড়ি দিয়ে বেঁধে জোর করে ধর্ষণ করে কাকির ছেলে

বাঙ্গালী কণ্ঠ ডেস্কঃ অসুস্থ কাকির বাড়িতে গিয়েছিল কাজে সহয়তা করতে। পরিবর্তে এমন ‘প্রতিদান’ মিলবে ভাবতে পারেনি ১৫ বছর বয়সী ওই নাবালিকা। ওই নাবালিকার ভাষায়, কাকি ডাক্তার দেখাতে যান। সে সময় তাকে বিছানায় হাত-পা দড়ি দিয়ে বেঁধে জোর করে ধর্ষণ করে কাকির ছেলে।

নাবালিকা বলেন, কাকি অসুস্থ থাকায় আমি তাকে সহয়াতে করতে তার বাড়িতে যাই। আমি যাওয়ার আগেই কাকি ডাক্তার দেখাতে চলে যান। বাড়িতে আর কেউ না থাকায় কাকির ছেলে আমাকে জোর করে হাত-পা দড়ি দিয়ে বেঁধে আমাকে ধর্ষণ করে।

এঘটনায় ১৫ বছর বয়সী ওই ছেলেটির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নাবালিকার মা।

পুলিস জানায়, ঘটনা বৃহস্পতিবার ঘটে। কিন্তু পরের দিন স্কুলে খেলে জ্ঞান হারায় ওই নাবালিকা। পরে সুস্থ হয়ে শিক্ষিকাকে ঘটনার কথা জানায় ওই নাবালিকা। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে হয়েছে। তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

সূত্রঃ জুমবাংলানিউজ

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর