,



২০২০: জেনে নিন কেমন থাকবে বাংলাদেশ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ পাশ্চাত্য রাশিচক্র মতে, বছরের শুরুতে রবি, বৃহস্পতি, শনি, প্লুটো ও কেতু আছে মকরে, শুক্র কুম্ভ রাশিতে, নেপচুন মীন রাশিতে, ইউরেনাস বৃষ রাশিতে, রাহু মকরে, চন্দ্র বৃশ্চিক রাশিতে, বুধ ও মঙ্গল ধনু রাশিতে আছে। নৈসর্গিক গ্রহগত অবস্থান ও মানডেন অ্যাস্ট্রলজির সূত্রমতে এবার চলুন দেখা যাক বাংলাদেশের জন্য ২০২০ সাল কেমন যেতে পারে।

প্রিয় জন্মভূমি বাংলাদেশের জন্য নানারকম ঘটনায় বছরটি হবে একটি স্মরণীয় বছর। এ বছর দেশের সার্বিক উন্নতি, শিক্ষা ও অর্থনীতিতে নানারকম ঘটনাপ্রবাহ, প্রশাসনিক কঠোর-নীতি বছরজুড়ে আলোচিত থাকবে। বিভিন্ন কারণে রাজনীতির মাঠ চাঙা থাকলেও সার্বিক পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

পাশ্চাত্য রাশিচক্র মতে, সরকার প্রধানের জন্য বছরটি হবে চ্যালেঞ্জিং। বারবার অপ্রিয় সত্য প্রকাশ ও কঠোর নীতিমালার কারণে দলের মধ্যে বিবেধ দেখা দিতে পারে। ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যগত বিষয়ে বাড়তি সচেতনতার প্রয়োজন হবে। তবে সার্বিকভাবে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো যেতে পারে। ব্যাংকিং ও আর্থিক খাতের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ কোনো সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হতে পারে। রেমিটেন্স অর্জনের ক্ষেত্রে বছরটি হবে স্মরণীয়।

এ বছর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ অতীতের রেকর্ড অতিক্রম করবে। আমদানি ও রপ্তানি বাণিজ্যে সমন্বয়ের অভাব, মুদ্রাস্ফীতির কারণে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে ধরা কঠিন হতে পারে।

পদ্মা সেতু, মেট্রোরেলসহ ভ্রমণ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে দেশব্যাপী চলমান কাজের অগ্রগতি দৃশ্যমান হবে। রোহিঙ্গা ইস্যু ছাড়াও প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে যেকোনো চুক্তিতে প্রশাসনকে আরো দক্ষতা ও কৌশল প্রয়োগ করতে হতে পারে। ক্রীড়াঙ্গনে বছরজুড়ে সাফল্য ও সম্ভাবনা দেখা যাবে।

২৭ জুন থেকে বছরের প্রায় বাকিটা সময় মঙ্গলগ্রহ মেষ রাশিতে অবস্থান করবে। শিক্ষার্থী ও তরুণপ্রজন্ম এ সময়ে কোনো কারণে প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠতে পারে। ছাত্র আন্দোলনের সঙ্গে সম্পৃক্তদের জন্য বছরটি ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। শিক্ষাঙ্গনের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ রক্ষায় রাষ্ট্রীয়ভাবে ‍গুরুত্বপূর্ণ কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রয়োজন হতে পারে। এভিয়েশনখাতের নিরাপত্তায় বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন হতে পারে।

দেশের স্বাস্থ্য বিভাগে আশাব্যঞ্জক কোনো উন্নতির খবর আশা করা যায়।  গবেষণা ও উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবায় বৈপ্লবিক পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি বছর সরকারি ও বেসরকারি খাতে প্রচুর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। তরুণ ও বেকার জনগোষ্ঠীকে শ্রমবাজারে সম্পৃক্ত করতে আরো কার্যকর ও সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের প্রয়োজন হতে পারে।

৪ জুনের পর থেকে দেশের সামগ্রিক পরিবেশ ও পরিস্থিতি সাময়িকভাবে অস্থিতিশীল হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। জনসাধারণের জান ও মালের নিরাপত্তায় সরকারকে কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রয়োজন হতে পারে।

দেশের সার্বিক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে বৈদেশিক ঋণ বাড়বে। শিল্প উন্নয়নে বৈদেশিক বিনিয়োগ বাড়তে পারে। শেয়ারবাজারসহ অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য বছরটি চ্যালেঞ্জিং হবে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা জেনে বুঝে বিনিয়োগ না করলে ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

বৈদেশিক বাণিজ্য ও মানবসম্পদ রপ্তানিতে চ্যালেঞ্জ বাড়তে পারে।  রপ্তানি বাণিজ্যে নতুন নতুন পণ্য ও সেবার বাজার বাড়বে। পুরনো রপ্তানিযোগ্য পণ্যের ব্যবসায়ে সাময়িক পরিবর্তনের হাওয়া লাগতে পারে। উচ্চশিক্ষায় প্রবাসী শিক্ষার্থীদের সাফল্য ও সম্মান দেশের জন্য ইতিবাচক ভূমিকা পালন করতে পারে।

সরকারের প্রশাসনিক কার্যক্রমের জন্য বছরটি স্মরণীয় একটি বছর হয়ে থাকবে। বছরজুড়ে বিভিন্ন প্রশাসনিক কার্যক্রমে অনেক পদস্থ ও প্রভাবশালী কর্মকর্তাদের বাড়তি সচেতনতার প্রয়োজন হতে পারে। অন্যথায় সম্মানহানীসহ আইনগত ঝামেলা মোকাবেলা করতে হতে পারে। প্রশাসনিক কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা সাধারণ মানুষের ভোগান্তি কমাতে পারে। দেশে ও বিদেশে সরকার প্রধানের গ্রহণযোগ্যতা ও সুনাম বাড়বে।

জনসমাবেশ, কনসার্ট কিংবা গণজমায়েতের ক্ষেত্রে জান ও মালের নিরাপত্তায় বাড়তি সচেতনতার প্রয়োজন হবে। সরকারের রাজস্ব ও রেমিটেন্স আদায়ে বছরটি স্মরণীয় একটি বছর হয়ে থাকবে।

সবমিলিয়ে ২০২০ সাল বাংলাদেশের জন্য একটি স্মরণীয় বছর হয়ে থাকবে। দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য বছরটি নিরাপদ ও আনন্দময় হোক এই আমাদের প্রত্যাশা।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর