,



নর্থসাউথ থেকে ফ্যামিলি ক্রাইসিস

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ সারিকা সাবাহ। রংপুরের এই শোবিজকন্যা চলতি সময়ের তারণ্যের ক্রেজ। বিজ্ঞাপনে মডেলিংয়ের পাশাপাশি নাটকের অভিনেত্রী হিসেবে দিন দিন ব্যস্ততা বাড়ছে তার। নিজের আলোয় আলোকিত করছেন চারপাশ। তবে পথটা এত সহজ ছিল না। স্রষ্টা প্রদত্ত সৌন্দর্য ও গ্ল্যামারের সঙ্গে অভিনয় প্রতিভা, ধৈর্য, পরিশ্রম আজ সারিকাকে পরিচিত করেছে দর্শকদের কাছে। এরইমধ্যে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে সুঅভিনেত্রী হিসেবে প্রমাণ করেছেন নিজেকে। বিশেষ করে তরুণদের কাছেই বেশি প্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি।

সারিকা ছোটবেলা থেকেই নাচ করতেন। টানা ছয় বছর নাচ শিখেছেন। সে সময়েই মিডিয়ায় কাজের চিন্তা মাথায় আসে ছোট্ট সারিকার। বিভিন্ন বিজ্ঞাপন মন দিয়ে দেখতেন আর ভাবতেন। ইশ! বিজ্ঞাপনে যদি কাজ করতে পারতাম এভাবে…। এরপর হঠাৎ করেই আদনান আল রাজীবের নির্দেশনায় হারপিকের ৪০ বছর উদযাপনের একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করার সুযোগ আসে। লুফে নেন তিনি। এখান থেকেই শুরু। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। একে একে  রেদওয়ান রনি, আশফাক উজ্জামান বিপুল, মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেন। নাটকে অভিষেকটাও হঠাৎ করেই। ২০১৭ সালে তিনি মুহাম্মদ  মোস্তফা কামাল রাজের নির্দেশনায় ‘ফ্রেন্ডস’ শিরোনামের নাটকে প্রথম অভিনয় করেন। এরপর অবশ্য আবার বিরতি পড়াশোনার জন্য। এক বছরের বিরতি শেষে ২০১৮ এর শেষে ফের ব্যস্ত হয়ে ওঠেন তিনি। ফিরে এসেই কাজল আরেফিন অমির ‘মেয়ে’ নাটকে অভিনয় করে বেশ আলোচনায় আসেন তিনি। এরপর তিনি একই পরিচালকের ‘জাস্ট চিল’ নাটকে অভিনয় করে দর্শকদের নজর কাড়েন। এই সময়ে সারিকা ‘বিউটিফুল’, ‘মুঠোফোন’, ‘লাভলি ওয়াইফ’, ‘অন্য প্রেমের গল্প’সহ আরো কিছু নাটকে অভিনয় করেন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে যে নাটকটির মাধ্যমে সব থেকে বেশি সফলতা তিনি কুড়াচ্ছেন সেটা হলো ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’। পরিচালক মোস্তফা কামাল রাজ। এ নাটকে ঝুমুর চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। পায়ে সমস্যা থাকে তার। তারপরও সব সময় প্রাণবন্ত থাকার চেষ্টা করেন। আর প্রেমিকের সঙ্গে নিজের সম্পর্ক ধরে রাখতে সব সময় সচেষ্ট এক তরুণীর ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয় করছেন সারিকা। এরই মধ্যে নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এ গ্র্যাজুয়েশন করেছেন সারিকা সাবাহ। এ অভিনেত্রী বলেন, ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে যে ভালোবাসা পাচ্ছি দর্শকদের সেটা আমাকে আরো উৎসাহিত করছে। এ কারণে আর কোনো নতুন ধারাবাহিকে আপাতত অভিনয় করতে চাই না। এ নাটকটিতেই সময় দিতে চাই। তবে খণ্ড নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছি। মিডিয়ায় আসা প্রসঙ্গে সারিকা সাবাহ বলেন, শুরুতে আমার পরিবার মিডিয়ায় কাজের ক্ষেত্রে বাধা দিতেন। কিন্তু পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করায় এবং অভিনয়েও ভালো সাড়া পাওয়ায় পরিবারের সবাই আনন্দিত। তারাই এখন আমাকে উৎসাহ দেন। সারিকা আরো বলেন, ইচ্ছে আছে নিজেকে একজন ভালো অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার। আমি তো এখনো শিখছি।  ছোট-বড় সবার কাছ থেকে শেখার চেষ্টা থাকে আমার। সারিকা সাবাহর ইচ্ছে আছে সামনে ভালো গল্পের চলচ্চিত্রে অভিনয় করার। সেই লক্ষ্য নিয়েই স্বপ্নের পথে একটু একটু করে এগিয়ে চলছেন তিনি। এদিকে সারিকা সাবাহ বেশ খোলামেলা সম্পর্কে রয়েছেন। প্রেমের কথা স্বীকার করে নিলেন সহজেই। তিনি বলেন, আমাদের সম্পর্কের বিষয়টি নিয়ে শোবিজের মানুষ অনেকেই জানেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এখন সবই খোলা বইয়ের মতো। আমার একজন আছেন, মোর দ্যান ফ্রেন্ড। কিন্তু বিয়ের জন্য তিনি পছন্দের কি না সেটা সময়ই বলে দেবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর