,



সুশান্তের মৃত্যু কাণ্ডে জেরা আপাতত বন্ধ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ জোর কদমে চলছে বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু-তদন্ত। তদন্ত ভার এখন সিবিআইয়ের হাতে। এছাড়া সুশান্তের মৃত্যুতে মাদকযোগ থাকায় আলাদা করে তদন্ত করছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। তাদের তদন্তে ইতোমধ্যে ধরা পড়েছেন সুশান্তের চর্চিত প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী, তার ভাই শৌভিকসহ কয়েকজন। তারা বর্তমানে জেলে রয়েছেন।

তবে এনিসিবি কয়েকদিনের জন্য বন্ধ রাখছে তাদের তদন্ত। কারণ এনসিবির যে দলটি সুশান্তের মৃত্যু-কাণ্ডে মাদকযোগের দিকটি তদন্ত করছেন, তাদের মধ্যে একজনের কোভিড সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ফলে প্রয়াত অভিনেতা সুশান্তের সাবেক ম্যানেজার শ্রুতি মোদীকে বৃহস্পতিবার সকালে ডাকা হলেও তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেনি এনসিবি।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় দক্ষিণ মুম্বাইয়ে এনসিবির দপ্তরে পৌঁছান শ্রুতি। কিন্তু তার বয়ান রেকর্ড শুরু করার আগেই এনসিবির হাতে তাদের এক তদন্তকারীর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। জানা যায় রেজাল্ট পজিটিভ। তখনই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, আপাতত জিজ্ঞাসাবাদ বন্ধ থাকুক। স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিমের (সিট) অন্যদেরও করোনা পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে এনসিবি।

বৃহস্পতিবার ডাকা হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহাকেও। তাকেও ফেরত পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। এই জয়ার সঙ্গে রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে মাদকের প্রসঙ্গ পেয়েছিলেন আর এক তদন্তকারী সংস্থা, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের গোয়েন্দারা। জয়া ও শ্রুতিকে এর আগে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। এবার তারা মুখোমুখি হবেন এনসিবির কর্মকর্তাদের।

এদিকে দুই দফায় জামিনের আবেদন নাকচ হওয়ায় দুই-একদিনের মধ্যেই হাইকোর্টে যেতে পারেন সুশান্তে বান্ধবী রিয়া ও তার ভাই শৌভিক। সুশান্তের লোনাভালার ফার্মহাউসের ম্যানেজার রইস বুধবার একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে দাবি করেছেন, শৌভিক ও সুশান্তের বন্ধু স্যামুয়েল হাওকিপকে মাদক সেবন করতে দেখেছিলেন তিনি।

অন্যদিকে বুধবারই রিয়ার সমর্থনে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী তাপসী পন্নু। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমি রিয়াকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনি না। কিন্তু যেভাবে তার চরিত্রহনন করা হচ্ছে তা নিন্দনীয়। আদালত কোনো রায় দেয়ার আগেই রিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করে দেয়া হচ্ছে। আপনারা কি চান রিয়া জেলে থাকুক, নাকি আসল দোষী জেলে যাক!’

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর