,



পাপুলের আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত আজ

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনে উপনির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে আজ শনিবার বৈঠকে বসছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবনে দলের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সভায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষাবিধি মেনে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহিদুল ইসলাম পাপুল কুয়েতের আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ায় শূন্য হওয়া লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচনের তপশিল গত ৩ মার্চ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান লক্ষ্মীপুর-২ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র ক্রয় করে জমা দিয়েছেন ২০ নেতা। পাশাপাশি বিএনপি, জাতীয় পার্টির (জাপা) একাধিক নেতা তত্পর রয়েছেন দলীয় মনোনয়ন পেতে। আওয়ামী লীগ গত টানা আট দিন এ আসনে মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র বিক্রি করেছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন দলের কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিয়া মো. গোলাম ফারুক পিংকু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন, অ্যাসেনসিয়াল ড্রাগসের এমডি ডা. এহসানুল কবির জগলুল, মোহাম্মদ আলী খোকন, কেন্দ্রীয় শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি তোফায়েল আহমেদ, কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ-পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক সামছুল ইসলাম পাটওয়ারী, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রানা আফছারী, আমরা কজন মুজিব সেনার প্রতিষ্ঠাতা এ এফ এম জসিম উদ্দীন, রায়পুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম নবী নেওয়াজ করিম চৌধুরীর স্ত্রী রেশমা আক্তার, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সদস্য মো. আবুল কাশেম, অ্যাডভোকেট সালাহ উদ্দিন রিগেন ও চট্টগ্রাম এক্স শাহীন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাঈদুল বাকীন ভুঁইয়াসহ ২০ জন। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তপশিল অনুযায়ী, আগামী ১৯ মার্চ মনোনয়ন বাছাই ও ২৪ মার্চ প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র বিক্রি উন্মুক্ত

এদিকে আওয়ামী লীগের আজকের বৈঠকে আসন্ন ১১ পৌরসভা ও ৩৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। এক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র বিক্রি এবার উন্মুক্ত করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রথম ধাপের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে ৩৭১ ইউনিয়নে দলীয় তিন জন প্রার্থীর নাম প্রস্তাব করতে তৃণমূলকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। জানা গেছে, প্রতি ইউনিয়নে গড়ে ৭ থেকে ১০ জন বা তারও অধিক দলীয় নেতা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর