,



মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি ঢাকায়

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উদযাপনের জমকালো অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্রথম বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে ঢাকায় এসেছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ। মালদ্বীপের ফার্স্টলেডি ফাজনা আহমেদও তার সঙ্গে এসেছেন।

তিন দিনের সফরে বুধবার সকালে ঢাকায় এসে পৌঁছান মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টকে অভ্যর্থনা জানান।

রাষ্ট্রপতির দপ্তর থেকে সকালে টুইটে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি বাংলাদেশে এসেছেন। সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা তাদের অভ্যর্থনা জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি ছাড়াও বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

পরে দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজিয়ে গার্ড অব অনারে সম্মান জানানো হয় মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টকে। এর পর তিনি গার্ড পরিদর্শন করেন।

ঢাকায় পৌঁছে তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে এবং ধানমণ্ডিন ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবেন।

বুধবার বিকালে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেবেন ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও থাকবেন ওই অনুষ্ঠানে।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট।
দুদেশের মধ্যে কয়েকটি সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী জানিয়েছেন, দেশ-বিদেশের অতিথিরা এই উৎসবে যোগ দেবেন। স্বাস্থ্য নির্দেশনা মেনে ১৭ থেকে ২৬ মার্চ এই অনুষ্ঠান উদযাপিত হবে। ১০ দিনের এই অনুষ্ঠানের মূল থিম ‘মুজিব চিরন্তন’। তবে বিভিন্ন দিনের অনুষ্ঠানের পৃথক থিম থাকছে। ১৭ মার্চের অনুষ্ঠানের থিম ‘ভেঙেছ দুয়ার এসেছো জ্যোতির্ময়’।

অনুষ্ঠানে যোগ দিতে নেপাল, শ্রীলংকা, ভুটান ও ভারতের রাষ্ট্র-সরকারপ্রধানরা পৃথক সময়সূচি অনুযায়ী ঢাকায় আসবেন। শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে দুদিনের সফরে ১৯ মার্চ ঢাকায় পৌঁছাবেন। নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারি দুদিনের সফরে ২২ মার্চ ঢাকায় আসবেন। সফরসূচি অনুযায়ী, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং ২৪ ও ২৫ মার্চ ঢাকা সফর করবেন। আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৬ মার্চ ঢাকায় আসবেন। তিনি ২৭ মার্চ দেশে ফিরে যাবেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর