,



চোখ মেলে তাকাচ্ছেন নায়ক ফারুক, কেবিনে স্থানান্তর

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ অসুস্থ হয়ে সিঙ্গাপুরে দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসাধীন চিত্রনায়ক ফারুকের অবস্থার উন্নতি হয়েছে। বহুদিন অচেতন অবস্থায় থেকে চেতনা ফিরে পেয়েছেন তিনি। এখন চোখ মেলে তাকাচ্ছেন। ডাকলে সাড়া দিচ্ছেন। টুকটাক কথা বলতে পারছেন। তার অবস্থার এমন উন্নতি দেখে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) থেকে কেবিনে স্থানান্তর করেছেন চিকিৎসাধীন।

বর্ষীয়ান এই অভিনেতার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ফারুকের ছেলে শরৎ বলেন, পরশু রাতেই বাবাকে আইসিইউ থেকে কেবিনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি খুবই ধীরগতিতে হচ্ছে। যে শরীর অবস্থায় গিয়ে ঠেকেছিল তাতে আমরা তো ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। আল্লাহর অশেষ রহমত ও চিকিৎসকদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় বাবা এখন উন্নতির দিকে। আলহামদুলিল্লাহ।’

এক মাসের বেশি সময় ধরে কথা বলতে পারেননি নায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে অচেতন ছিলেন তিনি।

অবস্থার উন্নতি হওয়ায় ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠান বলেন, সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমত। চিকিৎসকদেরও আন্তরিকতার কোনো শেষ নেই। তাদের কাছে কৃতজ্ঞতা জানানোর কোনো ভাষা আমাদের নেই। তারা ফারুককে সারিয়ে তোলার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

নায়ক ফারুক এখন সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আট বছর ধরে এই হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন এই অভিনয়শিল্পী ও রাজনীতিবিদ।

দীর্ঘদিন চিকিৎসা নেওয়ার পর প্রতিদিনই তার ধীরে ধীরে নড়াচড়া বাড়ছে। কথাও বলছে। রক্তচাপ ও মস্তিষ্কে যে সমস্যা ছিল, তা নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য চলতি বছরের মার্চ মাসের প্রথম দিকে সিঙ্গাপুরে যান অভিনেতা ও সাংসদ আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। পরীক্ষায় তাঁর রক্তে সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর থেকেই শারীরিকভাবে অসুস্থতা অনুভব করছিলেন তিনি। সিঙ্গাপুরে নিজের পরিচিত চিকিৎসকের পরামর্শে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। হাসপাতালে ভর্তির কয়েক দিন পর তার মস্তিষ্কেও সংক্রমণ ধরা পড়ে।

প্রায় পাঁচ দশক ঢালিউডে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে আসছেন ফারুক। অভিনয় থেকে অবসর নেওয়ার পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ঢাকা-১৭ আসনে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর