,



যেখানে সেখানে কোরবানির হাট বসতে দেওয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠকের ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আসন্ন কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দেশের কোথাও যেখানে সেখানে হাট বসতে দেওয়া হবে না।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সচিবালয়ে পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

নি বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় এবারও অনলাইনে পশু কেনাবেচায় মানুষকে উৎসাহিত করা হবে। গত বছরও আমরা দেখেছি অনলাইনে বেশ কেনাবেচা হয়েছে। এবারও আমরা এ পদ্ধতিকে উৎসাহিত করবো। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় যে নির্দেশনা দেবে তা সকলকে মানতে হবে।

তিনি বলেন, সারাদেশে স্থায়ী ও অস্থায়ীভাবে পশুর হাটের নিরাপত্তা জোরদার করা হবে। হাটের নিরাপত্তায় অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হবে। হাটে জাল নোট শনাক্তকরণ, অজ্ঞান পার্টি, মলম পার্টি যেন হাটে ভিড়তে না পারে তার ব্যবস্থা করা হবে। ব্যবসায়ীদের টাকা পরিবহনে পুলিশ সহযোগিতা করবে। ঈদের ছুটিতে বিভিন্ন পশুবাহী ট্রাক-নৌযান ঢাকায় আসবে, এসব ক্ষেত্রে চাঁদাবাজি বন্ধে নজরদারি থাকবে। রাস্তায় যেখানে সেখানে পশুবাহী যানবাহন থামতে পারবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ঈদের সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, মহাসড়কে যান চলাচল নির্বিঘ্ন করা হবে। পাশাপাশি পবিত্র ঈদুল আজহার বন্ধে মহানগর, জেলা-উপজেলা এবং সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ এবং নিরাপত্তা জোরদার করা হবে। চুরি-ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধে গোয়েন্দা নজরদারিসহ পুলিশ টহল বাড়ানো হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, সড়ক-মহাসড়কে যানজট নিরসনে হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশ এবং আনসার বাহিনী কাজ করবে। যেসব স্থানে যানজট বেশি হয় সেসব স্থানে ওয়াচ টাওয়ার থাকবে। সড়ক বিভাগকে অনুরোধ করেছি, যানজট হচ্ছে যেসব জায়গায় বিশেষ করে টঙ্গী-গাজীপুরের রাস্তা যেন ক্লিয়ার থাকে। এছাড়া শিল্প এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে।

তিনি জানান, যেকোনো নাশকতা বন্ধে গোয়েন্দা বাহিনী সজাগ থাকবে। আরিচা-দৌলতদিয়া-মাওয়া-বাংলাবাজারসহ সকল ফেরিঘাটে যেন যানজট না হয় সেজন্য আগাম প্রস্তুতি থাকবে। নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।

চামড়া কেনাবেচায় সিন্ডিকেট রোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ঈদের আগেই দাম নির্ধারণ করবে বলে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চামড়া পাচার রোধে সকল ধরনের ব্যবস্থা নেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

তিনি আরও জানান, নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যের মূল্য বৃদ্ধি ও ভেজাল রোধে ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করবে। সড়ক-মহাসড়ক ও শিল্পাঞ্চল এলাকায় অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনায় উদ্ধারকাজে ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুলন্সের কুইক রেসপন্স টিম প্রস্তুত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর