,



কে পাচ্ছেন রিয়ালের ১০ নম্বর জার্সি

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ  ফুটবলে ১০ নম্বর জার্সির মর্যাদাই অন্যরকম। পেলে, ম্যারাডোনা থেকে শুরু করে মিশেল প্লাতিনি, জিনেদিন জিদান, রোনালদিনহোর পর ওয়েইন রুনি ও লিওনেল মেসির মতো খেলোয়াড়রা দশ নম্বর জার্সিকে মহামান্বিত করেছেন। স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ১০ নম্বর জার্সি পরেছেন বিখ্যাত আলফ্রেডো ডি স্টেফানো, ফ্রাঙ্ক পুসকাস, মাইকেল লাউড্রুপ, ক্লারেন্স সিডর্ফ ও লুইস ফিগোর মতো খেলোয়াড়রা। ফুটবল ম্যাচে আক্রমণভাবে সব চোখ থাকে ১০ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড়ের দিকে। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদের সর্বশেষ এক দশক চোখ ঘুরে গেছে। ১০ এর পরিবর্তে দর্শকদের নজর থাকে এখন নাম্বার সেভেনে। ১০ নম্বরের মতো না হলেও ৭ নম্বর জার্সির মর্যাদাও বেশ। এরিক কাঁতোয়া, জর্জ বেস্ট, গারিঞ্চ ও ডেভিড বেকহ্যাম মতো খেলোয়াড় পরতেন এই নম্বরের জার্সি। আর সর্বশেষ ৭ নম্বর জার্সির মর্যাদা অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। সর্বশেষ এক দশক রিয়াল মাদ্রিদে নাম্বার টেনের চেয়ে বেশি নজর কেড়েছে নাম্বার সেভেন। কিন্তু ১০ নম্বর তো আর ফেলনা নয়। এটার মর্যাদা সবসময় সমান। কিন্তু সর্বশেষ এক যুগ রিয়াল মাদ্রিদ একজন নাম্বার টেন পায়নি। সর্বশেষ নাম্বার টেনের মর্যাদা রাখেন লুইস ফিগো। ২০০০ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত রিয়ালে ১০ নম্বর জার্সি পরে খেলেন তিনি। এরপর যোগ দেন ইতালির ক্লাব ইন্টার মিলানে। তিনি রিয়ালে ১০ নম্বার জার্সি খুলে রেখে যাওয়ার পর রিয়ালে এই নম্বরের যথাযথ মর্যাদা আরকেউ ধরে রাখতে পারেনি। ফিগোর পর রিয়ালের ১০ নম্বর জার্সি দেয়া হয় ব্রাজিলিয়ান রবিনহোর গায়ে। ক্লাবটিতে ২০০৫ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত খেললেও নিজেকে তেমন পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারেননি। এরপর নাম্বার টেন দেয়া হয় ডাচ ফরোয়ার্ড ওয়েসলি স্নেইডারকে। কিন্তু তারও একই অবস্থা। স্নেইডারের পর ২০১০ সালে রিয়ালের ১০ নম্বর জার্সি পান জার্মানির মেসুত ওজিল। মিডফিল্ডার হিসেবে তার দারুণ নৈপুণ্য থাকলেও গোলের হিসেবে রেকর্ড তার পক্ষে কথা বলে না। ওজিল রিয়াল থেকে বিদায় নেন ২০১৩ সালে। পরের বছর ক্লাবটিতে যোগ দেন কলম্বিয়ার স্ট্রাইকার হামেস রদ্রিগেজ। এবার অনেকেই মনে করছিলেন, রিয়াল একজন যোগ্য নাম্বার টেন জার্সি পরার খেলোয়াড় পেলো। কার্লো আনচেলত্তির যুগে নাম্বার টেন হিসেবে তাকে ব্যবহার করার চেষ্টা চালানো হয়। কিন্তু তিনি সবসময় ছিলেন নাম্বার সেভেন তথা রোনালদোর ছায়া হয়ে। নিজেক ঠিক নাম্বার টেন হিসেবে মেলে ধরতে পারেননি। এরপর কোচ জিনেদিন জিদানের অধীনে তো তিনি খুব একটা সুযোগই পাননি। আর এবার তাকে জার্মানির ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ধারে (লোন) দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এতে আগামী মৌসুমে রিয়ালের নাম্বার টেন কে হবেন তা নিয়ে নানা প্রশ্ন। বেশ কয়েকটি নাম রয়েছে সামনে। কিন্তু জিদতান কাকে ১০ নম্বর জার্সি দেবেন তা নিয়ে ধোয়াশা। তরুণ ফরোয়ার্ড মার্কো আসেনসিও এই নাম্বার টেন নেয়ার তালিকায় সবার ওপরে আছে। গত মৌসুমে তিনি অল্প সুযোগ পেলেও দারুণ খেলেছেন। ২০ নম্বর জার্সি পরে দর্শকদেরমন জিতেছেন। এক্ষেত্রে ১০ নম্বরের লড়াইয়ে আছেন ইসকো। তিনিও গত মৌসুমে দারুণ খেলেছেন। মিডফিল্ডার টনি ক্রুস ও লুকা মদরিচও আছেন এই তালিকায়। তবে একটি সিদ্ধান্ত এইসব হিসাব-নিকাশ পাল্টে দিতে পারে। মোনাকো থেকে ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপেকে দলে ভেড়ানোর প্রবল চেষ্টা করছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাকে দলে ভেড়ানো গেলে রিয়ালের ১০ নম্বর জার্সি তার গায়ে উঠবে বলেই অনেকে মনে করছেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর