,



চলছে সহিংসতা, পর্যটনমন্ত্রীর গাড়িতে হামলা

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ  ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা সমর্থকদের হামলার শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার তিনি নেপালি কবি ভানুভক্তের জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শিলিগুড়ির কাছে পানিঘাটায় গেলে সেখানে হামলার মুখে পড়েন।

গৌতম বাবুর অভিযোগ, পানিঘাটায় ঢুকতেই মোর্চা সমর্থকরা কুকরি নিয়ে হামলা চালায় এবং তার গাড়ি আটকে বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভকারীরা ইট নিক্ষেপ শুরু করলে তিনি ব্যাঙডুবির সেনা ছাউনিতে আশ্রয় নেন। পর্যটনমন্ত্রী এলাকা ছাড়ার পর পুলিশের একটি গাড়িতেও বিক্ষোভকারীরা ভাঙচুর চালায়।

মোর্চা সমর্থকদের প্রবল বাধার মুখে পড়ে শেষপর্যন্ত সরকারিভাবে পালিত হওয়া কবি ভানুভক্তের জন্মজয়ন্তী পালন অনুষ্ঠানস্থল পর্যন্ত যেতে পারেননি গৌতম দেব। মন্ত্রীর যাত্রা পথে পাথরের বড়ো বড়ো বোল্ডার ফেলে পানিঘাটার রাস্তা অবরুদ্ধ করে রাখে মোর্চা কর্মী-সমর্থকরা। এ সময় প্রায় ৬০টি গাড়ির কনভয়ে পুলিশ বাহিনী থাকা সত্ত্বেও অবরোধ সরিয়ে এগোতে পারেননি মন্ত্রী। অবশেষে পানিঘাটা বাজার থেকে দু’কিলোমিটার আগে ৫ নম্বর মোড়ে রাস্তার উপর চেয়ার পেতে কবির ছবিতে ফুলের মালা দিয়ে মন্ত্রী সরকারি অনুষ্ঠান পালন করেন।

এদিকে, মোর্চা সমর্থকরা তিস্তা বাজারে সিকিমগামী ১০টি গাড়িতে হামলা চালিয়েছে। এছাড়া কালিম্পঙে তামাং বোর্ডের চেয়ারম্যানের বাড়িতে ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। দার্জিলিঙের ধত্রেয় বনবাংলো ও কালিম্পঙের তিস্তা বন বাংলোতে দুর্বৃত্তরা আগুন ধরিয়ে দেয়।

বুধবার রাতে সুকনা গ্রাম পঞ্চায়েত সংলগ্ন ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতর দুর্বৃত্তরা পেট্রল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এরফলে কার্যালয়ের বেশকিছু আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ওই ঘটনার সঙ্গে তারা জড়িত নয় বলে দাবি করেছেন মোর্চা নেতা সুরেন প্রধান।

গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার পক্ষ থেকে দার্জিলিংয়ে গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে সেখানে একমাসেরও বেশি সময় ধরে গণআন্দোলন ও সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দার্জিলিংয়ে খুব শিগগিরি শান্তি আসবে বলে মন্তব্য করেছিলেন। কিন্তু এদিন রাত থেকেই সেখানে সহিংসতা শুরু হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর