৬ আসনে প্রার্থী হতে চান ৫২ জন

বিএনপির ছেড়ে দেয়া ৬ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ছিল বৃহস্পতিবার। ৬টি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মোট ৫২ জন প্রার্থী। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে স্ব-স্ব আসনের নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে তারা মনোনয়নপত্র জমা দেন। শূন্য ঘোষিত ৬টি আসন হলো- ঠাকুরগাঁও-৩, বগুড়া-৪ ও ৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ ও ৩ এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২। নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয়-১ শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব মোহাম্মাদ মোরশেদ আলম স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করা বিএনপির ছয় সংসদ সদস্যের শূন্যঘোষিত আসনে গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ আসনগুলোতে মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ৮ জানুয়ারি এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৫ জানুয়ারি। ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এ ছয় আসনে ১ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

বগুড়া-৬ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ১৩ জন প্রার্থী। বগুড়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম ওমর, জাসদের ইমদাদুল হক ইমদাদ, গণফ্রন্টের আফজাল হোসেন, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মনসুর রহমান, বাংলাদেশ খেলাফতে আন্দোলনের প্রার্থী মো. নজরুল ইসলাম, জাকের পার্টির প্রার্থী মো. ফয়সাল বিন শফিক, স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউটিউবার মো. আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম, সরকার বাদল, আব্দুল মান্নান আকন্দ, সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠু, রাকিব হাসান এবং মাছুদার রহমান মিলন।

বগুড়া-৪ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৯ জন প্রার্থী। বগুড়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া প্রার্থীরা হলেন- ১৪ দলীয় মনোনীত প্রার্থী বগুড়া জেলা জাসদের সভাপতি একেএম রেজাউল করিম তানসেন, জাতীয় পার্টির প্রার্থী শাহিন মোস্তফা কামাল, জাকের পার্টির আব্দুর রশিদ সরদার, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. তাজ উদ্দিন মণ্ডল, স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউটিউবার মো. আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম, মো. গোলাম মোস্তফা, আলহাজ মো. ইলিয়াস আলী, মো. কামরুল হাসান সিদ্দিকী (জুয়েল), মো. আব্দুর রশিদ।

ঠাকুরগাঁও-৩ (পীরগঞ্জ-রানীশংকৈল) আসনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন ৬ জন প্রার্থী। ঠাকুরগাঁও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া প্রার্থীরা হলেন- ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির মো. ইয়াসিন আলী, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ফ্রন্টের (বিএনএফ) মো. সিরাজুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির হাফিজ উদ্দীন আহম্মেদ, জাকের পার্টির এমদাদুল হক, ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টির (এনপিপি) মো. সাফি আল আসাদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ গোপাল চন্দ্র রায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ১৩ জন প্রার্থী। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিল্লুর রহমান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া প্রার্থীরা হলেন- সদ্য পদত্যাগী এমপি উকিল আব্দুস সাত্তার, জাতীয় পার্টির মো. আবদুল হামিদ, জাকের পার্টির জহিরুল ইসলাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) মো. রাজ্জাক হোসেন; এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা, মো. আবদুর রহিম, মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু, মো. আশরাফউদ্দিন, মোহন মিয়া, আবু আসিফ, মো. মাঈনউদ্দিন, শাহজাহান আলম সাজু, শাহ মফিজ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর, নাচোল, ভোলাহাট) আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৬ জন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলকারীরা হলেন- আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিয়াউর রহমান, জাতীয় পার্টির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের নাবীউল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী রাজশাহী জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী খুরশিদ আলম বাচ্চু ও জাকের পার্টির প্রার্থী গোলাম মোস্তফা।

অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসনের উপনির্বাচনেও মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৬ জন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খাঁন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলকারীরা হলেন- আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ, জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল, জাসদের প্রার্থী মুনিরুজ্জামান মুনির, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের প্রার্থী কামরুজ্জামান খাঁন, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক যুবলীগ নেতা সামিউল হক লিটন ও তাহরিমা খাতুন।

গত বছরের ১০ ডিসেম্বর বিকেলে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ থেকে বিএনপির দলীয় সাতজন এমপি পদত্যাগের ঘোষণা দেন। পরদিন ১১ ডিসেম্বর বিএনপির ছয়জন সংসদ সদস্য স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। একজন দেশের বাইরে ছিলেন। তিনি পরে পদত্যাগপত্র জমা দেন। ৩৫০ আসনের সংসদে বিএনপির সাতজন সংসদ সদস্য হলেন উকিল আব্দুস সাত্তার, হারুন-অর রশীদ, জি এম সিরাজ, আমিনুল ইসলাম, জাহিদুর রহমান, মোশাররফ হোসেন ও রুমিন ফারহানা। সাতজনের মধ্যে রুমিন ফারহানা সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য। বাকি ছয়টি আসনে উপনির্বাচন হচ্ছে। তফসিল অনুযায়ী, শূন্য আসনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ৫ জানুয়ারি। যাচাই-বাছাই ৮ জানুয়ারি এবং প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৫ জানুয়ারি। ১ ফেব্রুয়ারি সবকটি আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর