নায়িকাকে চুমু দেওয়া সেই ভক্তের পরিচয় মিলেছে

গত সোমবার দুপুরে ঢাকার ধামরাইয়ে ‘দ্য রাইটার’ সিনেমার শুটিং করছিলেন ঢাকাই সিনেমার নায়িকা শিরীন শিলা। কথা বলতে বলতে কাছাকাছি এসে জড়িয়ে ধরে নায়িকাকে ‘চুমু’ দিয়ে বসেন এক কিশোর ভক্ত। বিব্রতকর এক পরিস্থিতি তৈরি হয়। মুহূর্তের মধ্যেই ওই ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর থেকে শুরু হয় তুমুল আলোচনা।

এ ঘটনায় নায়িকার পায়ে ধরে ক্ষমা চেয়েছে ওই কিশোর ভক্ত। তবে এখনো পাঠকদের মনে আলোচনার রেশ কাটেনি। অনেকেই সেই কিশোরের পরিচয় জানতে চান।

জানা যায়, চুমুকাণ্ডে আলোচিত ওই কিশোরের নাম মাসুদ রানা। বয়স ১৮ বছর। তার বাড়ি মানিকগঞ্জে। নায়িকাকে জড়িয়ে ধরার সময় নিজের কেউ নেই, এতিম দাবি করলেও আসলে তার সে সদ্য বিবাহিত এবং তার মাও রয়েছেন। মাত্র ৯ দিন আগে সে বিয়ে করেছে। সে একজন রিকশাচালক বলে জানায়।

এ প্রসঙ্গে শিরিন শিলা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আজ আমি তাকে আনতে লোক পাঠিয়েছিলাম। তার বাসায় বউ আছে, মা আছে। পুরো ফ্যামিলির সবাই আছে। ইভেন সে রিকশা চালায়। ওর মাথায় নাকি সমস্যা। ও সুস্থ স্বাভাবিক। ও বড় অ্যাক্টিংবাজ, মিথ্যাবাদী, প্রতারক।’

কেন এ কাজটা করেছ জানতে চাইলে- ওই ভক্ত শিরিন শিলার পা জড়িয়ে ধরে ক্ষমা চান। তাকে বলতে শোনা যায়, ‘আমার ভুল হয়ে গেছে। আমার মাথায় সমস্যা।’

এদিকে অনেক খোঁজাখুজি করে সেই কিশোরের সন্ধান পাওয়া যায়। কেন তিনি সেই নায়িকাকে চুমু দিয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘তাকে ছবিতে দেখে অনেক ভালো লাগে, সুন্দর লাগে, তাকে অনেক ভালোবাসি তার জন্য তাকে আমি চুমু (কিস) দিয়েছি। এরপর ওই কিশোর বলেন, সে আমার বড় বোনের মতো তাই আমি তাকে কিস (চুমু) করেছি।’

সেলিব্রিটিদের সাথে মানুষ ছবি উঠায়, তুমি চুমু কেন দিয়েছো এমন প্রশ্রের জবাবে ওই কিশোর আরও বলেন, আমি আসলে বুঝতে পারিনি। আমি সরল মনে করেছি। আমি আসলে বুঝতে পারিনি এভাবে ভিডিও করে ছেড়ে দিবে। এ জন্য আমি দুঃখিত, ক্ষমাপ্রার্থী। এ সময় তিনি ভাইরাল হওয়া ভিডিও ডিলিট করার অনুরোধ জানান।

‘দ্য রাইটার’ ছবির মূল ভূমিকায় অভিনয় করছেন চিত্রনায়ক আদর আজাদ। ছবিটিতে পুলিশ কর্মকর্তার চরিত্রে অভিনয় করছেন শিরিন শিলা। ছবিটির কাহিনি, সংলাপ ও চিত্রনাট্য পরিচালনা করেছেন এ এইচ এম এনামুল হক।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর