ভোটে আলোচনায় ৫ সাবেক আমলা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চিকিৎসক-প্রকৌশলীসহ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন অন্তত ৪০ জন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। এর মধ্যে নৌকা মার্কায় ভোট করে আলোচনায় ৫ সাবেক আমলা।

জামালপুর-৫ আসনে নৌকার প্রার্থী হয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ। সেখানে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঈগল মার্কার মো. রেজাউল করিম। তাই ভোটে জয়টা খুব সহজ হচ্ছে না তাঁর জন্য। রেজাউলের শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হতে পারেন তিনি।

ভোটে জিতলে এলাকার মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন বলে জানান জামালপুর-৫ আসনে নৌকার প্রার্থী আবুল কামাল আজাদ। তিনি বলেন, ‘রাস্তাগুলো যদি তৈরি করতে পারি, কাচা রাস্তাকে পাকা করা। সরু রাস্তাকে চওড়া করা। তাতে আমি মনে করি, এলাকার মানুষের উন্নয়নের চাহিদা খুব দ্রুত মিটবে।’

মহাদেবপুর-বদলগাছী নিয়ে নওগাঁ-৩ আসনে নৌকার প্রার্থী সাবেক সিনিয়র সচিব সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্ত্তী। ভোটের মাঠে তাঁকেও নিতে হচ্ছে নিজ দলেরই স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) ছলিম উদ্দীন তরফদারের চ্যালেঞ্জ।

নেত্রকোণা-৪ আসনে নৌকা মার্কায় লড়ছেন সাজ্জাদুল হাসান। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কাজ করেছেন জ্যেষ্ঠ সচিব হিসেবে। তারপর যুক্ত হন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে। উপনির্বাচনে জিতে আসা এই সংসদ সদস্যকে লড়তে হচ্ছে জাতীয় পার্টির লিয়াকত আলী খানের সঙ্গে।

সদর-বিশ্বম্ভরপুর নিয়ে গঠিত সুনামগঞ্জ-৪ আসনে নৌকার প্রার্থী সরকারি কর্ম কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক। অবসরে যান ২০২০ সালে। তবে ভোট যুদ্ধটা খুব সহজ হচ্ছে না তাঁর। নিতে হচ্ছে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ও বর্তমান এমপি পীর ফজলুর রহমানের চ্যালেঞ্জ।

ভোটাররা অবকাঠামোগত উন্নয়নের ব্যাপারে সচেষ্ট বলে জানান ড. মোহাম্মদ সাদিক। তিনি বলেন, ‘অবকাঠামোগত উন্নয়নে ব্রিজ, রাস্তা এবং স্কুল–কলেজ এগুলোর বিষয়ে আমাদের ভোটারদের অনেক প্রত্যাশা আছে।’

ফেনী-১ আসনে নৌকা নিয়ে লড়ছেন আরেক সাবেক আমলা আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম। তিনি প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব ছিলেন। তবে প্রথমবার ভোটে এসেই তাঁকে নিতে হচ্ছে লাঙ্গলের প্রার্থী শাহরিয়ার ইকবালের চ্যালেঞ্জ।

গত ১৫ নভেম্বর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। এরই মধ্যে প্রতীক পেয়ে নির্বাচনী প্রচার শুরু করেছেন প্রার্থীরা। অলিগলি ছেয়ে গেছে ব্যানার–পোস্টারে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব প্রার্থীরা। এই প্রচার চলবে আগামী ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। তফসিল অনুযায়ী ভোট হবে আগামী ৭ জানুয়ারি।

এবারের নির্বাচনে ইসির নিবন্ধিত ৪৪টি দলের মধ্যে অংশ নিচ্ছে ২৮টি। বিএনপিসহ বাকি সমমনা দলগুলো এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর